আজ বুধবার, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ ।   ১৭ এপ্রিল ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে নতুন সিদ্ধান্ত জানায় আবহাওয়া অফিস

-Advertisement-

আরো খবর

- Advertisement -
- Advertisement -

আলোকিত ডেস্ক :

বাংলাদেশ-পাকিস্তান ম্যাচ দিয়ে এশিয়া কাপের সুপার ফোরের লড়াই শুরু হয়ে গেছে। সেই সঙ্গে হাইব্রিড মডেলের এবারের আসরের পাকিস্তান পর্বও শেষ হয়েছে। সুপার ফোর ও ফাইনাল হবে সহ-আয়োজক শ্রীলঙ্কায়। বৃষ্টির কারণে গ্রুপপর্বের ভারত-পাকিস্তানের ম্যাচ সর্ম্পূণ হয়নি। আগামী রবিবার (১০ সেপ্টেম্বর) শ্রীলঙ্কার কলম্বোয় সুপার ফোরের লড়াইয়ে নামছে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দেশ। এ ম্যাচটিও বৃষ্টির কবলে পড়তে যাচ্ছে বলে আবহাওয়ার অফিস জানায়। এছাড়া সুপার ফোরের বাকি ম্যাচ গুলোও বৃষ্টিতে ভেসে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করা যাচ্ছে। এর মধ্যেই ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট ক্রিকইনফোর জানায়, এসিসি ও পিসিবি আলোচনা করে কেবল ১০ সেপ্টেম্বরের ভারত-পাকিস্তানের ম্যাচটির জন্য রিজার্ভ ডে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যদিও এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল এ নিয়ে অফিসিয়ালি কোনো বার্তা দেয়নি এখনো।

সূচি ঘোষণার সময় এশিয়া কাপের ফাইনালে রিজার্ভ ডে থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। ১৭ সেপ্টেম্বরের ওই ম্যাচের রিজার্ভ ডে বহাল থাকছে। এবারের এশিয়া কাপের আসর নিয়ে কতবার সিদ্ধান্ত বদলেছে, হিসেব করে সঠিক সংখ্যা বলাটা কিছুটা কঠিনই! শুরুতে সংস্থাটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, এশিয়া কাপের আসর গড়ানোর কথা ছিল পাকিস্তানের মাটিতে। তবে রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের কারণে দেশটিতে খেলতে যেতে রাজি ছিল না ক্রিকেটের ক্ষমতাধর দল ভারত। সে কারণে কয়েক দফায় বৈঠকের পর হাইব্রিড মডেলে খেলতে রাজি হয় দুই দেশ। সহযোগী হিসেবে ভেন্যু ঠিক হয় শ্রীলঙ্কায়। তবে বিপত্তি বাধে দেশটিতে চলমান বৃষ্টির মৌসুম। সাধারণত সেপ্টেম্বরে শ্রীলঙ্কায় প্রচণ্ড বৃষ্টি হয়ে থাকে। ফলে মাঠে খেলা গড়ালেও সেটার ফলাফল পাওয়া নিয়ে রাজ্যের অন্ধকার ভর করে। এমন অবস্থায় কলোম্বোতে নির্ধারিত ম্যাচগুলো সরিয়ে হাম্বানটোটায় নিয়ে যাওয়ার গুঞ্জন উঠেছিল। পিসিবির চেয়ারম্যান জাকা আশরাফ তার নতুন পরিকল্পনা জানিয়েছিলেন এসিসি সভাপতি জয় শাহকে।

এশিয়া কাপের বাকি ম্যাচগুলো পাকিস্তানে নেওয়ার প্রস্তাব দেওয়ার পাশাপাশি ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ দুবাইয়ে আয়োজনেরও প্রস্তাব দেন তিনি। তবে এমন গুঞ্জনে যেন গরম পানিই ঢেলেই দিয়েছেন এসিসির সভাপতি জয়। তিনি জানিয়েছেন যত মেঘলা পরিবেশই হোক না কেন ম্যাচগুলো আগের সময়সূচি ও ভেন্যুতেই অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যেই এসিসি বরাবর ক্ষতিপূরণ চেয়ে চিঠিও নাকি পাঠিয়েছিল পিসিবি। এমনকী সুপার ফোরের ভেন্যু নিয়ে হতাশা জানায় পাকিস্তান। এর মধ্যেই কেবল ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে নতুন সিদ্ধান্ত নিলো কর্তৃপক্ষ।

- Advertisement -

০৮-০৯-২০২৩ইং

- Advertisement -
- Advertisement -