9:15 am |আজ সোমবার, ৯ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | ২৩শে মে ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২১শে শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরি




সাংবাদিক নাজমুলকে লাঞ্চিত করার ঘটনায় মামলা নিলেন ওসি নাসির উদ্দীন

সাংবাদিক নাজমুলকে লাঞ্চিত করার ঘটনায় মামলা নিলেন ওসি নাসির উদ্দীন




ইব্রাহিম খলিল

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দৃশ্য ক্যামেরায় ধারণ করায় সাংবাদিক খান নাজমুল হুসাইনকে লাঞ্চিত করার ঘটনায় বেশকয়েকদিন বিভিন্ন প্রিন্ট মিডিয়া সহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সরব হয়ে উঠেছে। তাছাড়া বিভিন্ন মিডিয়া পাড়ার সাংবাদিকদের মধ্যে আলোচনা ও সমালোচনার ঝড় বইছে।
এ ঘটনায় গত ইংরেজি ০২/০৫/২২ তারিখে ভুক্তভোগী বাদী হয়ে তিন জন সহ অজ্ঞাতনামা আরও কয়েকজনের বিরুদ্ধে কলারোয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এর প্রেক্ষিতে সাতক্ষীরা কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ নাসির উদ্দীন নিজেই সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং ঘটনার সত্যতা পেয়ে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা গ্রহণ করেন যাহার মামলা নং ০৯, তারিখ ০৬/০৯/২২। অভিযুক্তরা হলেন, সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ঘরচালা গ্রামের মৃত রশিদ মোল্যার ছেলে মিলন মোল্যা (৩৫),  একই গ্রামের লতিফ মোড়লের ছেলে লাল্টু মোড়ল (৩০) এবং কলারোয়া উপজেলার কাসিয়াডাংগা গ্রামের শহিদুল ইসলাম সরদারের ছেলে কামাল সরদার (৩২)।
ভুক্তভোগী  সাংবাদিক সাতক্ষীরা জেলার তালা উপজেলার ঘোনা গ্রামের আবু হোসেন খান এর ছেলে ও খুলনা হতে প্রকাশিত দৈনিক খুলনাঞ্চল পত্রিকার সাতক্ষীরা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্বরত আছেন। অভিযোগ সুত্রে প্রকাশ, সাতক্ষীরা জেলার কলারোয়া উপজেলার মুরারিকাটি মোস্তাকের ঘের হতে কোন নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করেই দীর্ঘ দিন যাবত অবৈধ পন্থায় ড্রেজার মেশিন দিয়ে মিলন মোল্যা, লাল্টু মোড়ল ও কামাল সরদার বালু উত্তলন করছে। এর প্রেক্ষিতে গত ইংরেজি ০২/০৫/২২ তারিখ দুপুর আনুমানিক ২ ঘটিকায় ভুক্তভোগী ঐ সাংবাদিক তথ্য সংগ্রহের নিমিত্তে ঘটনা স্থলে পৌছে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলনের দৃশ্য ক্যামেরার ধারণ করেন। এ সময় পুুর্বে থেকে ওত পেতে থাকা উল্লেখিত ব্যক্তিরা ক্যামেরায় তোলা ছবি ডিলেট করতে বলেন। উক্ত প্রস্তাবে ভুক্তভোগী সাংবাদিক নাজমুল রাজি না হওয়ায় দুর্বৃত্তরা ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। ঘটনার এক পর্যায় নাজমুলের ক্যামেরা ম্যান কামরুল ইসলমের কাছ থেকে জোরপুর্বক ক্যামেরা কেড়ে নিয়ে তাদের হাতে থাকা লোহার রড ও লাটি সোটা দিয়ে খান নাজমুল সহ কামরুল কে বেধড়ক মারপিঠ করে। এক পর্যায় দুর্বৃত্তরা
ভুক্তভোগী সাংবাদিক  নাজমুলের গলায় ঝুলিয়ে রাখা পত্রিকার পরিচয় পত্র কেড়ে নেয়। ভুক্তভোগীদের ডাকচিৎকারে লোকজন ছুটে আসলে মিলন মোল্যা, লাল্টু মোড়ল ও কামাল সরদার সাংবাদিক নাজমুলকে উদ্দেশ্য করে জীবন নাশের হুমকি সহ অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। এদিকে আহত সাংবাদিক খান নাজমুল ও তার ক্যামেরা ম্যান কামরুল কে স্থানীয়রা উদ্ধার করে কলারোয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে তারাআ চিকিৎসা গ্রহণ করেন। এ বিষয়ে কলারোয়া থানার ওসি নাসির উদ্দীন নিশ্চিত করে বলেন, সাংবাদিক লাঞ্চিত করার ঘটনায় কলারোয়া থানায় একটি মামলা হয়েছে পাশাপাশি আসামিদের ধরার চেষ্টা অব্যাহত আছে।
আলোকিত প্রতিদিন/ দ ম দ

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন











All rights reserved. © Alokitoprotidin
এস কে. কেমিক্যালস এগ্রো লি: এর একটি মিডিয়া প্রতিষ্ঠান