1:36 pm |আজ বৃহস্পতিবার, ১২ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | ২৬শে মে ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৪শে শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরি

সংবাদ শিরোনাম:
সংসদ ভেঙে দিয়ে নির্বাচন দিতে সরকারকে ৬ দিনের সময় দিলেন ইমরান খান না ফেরার দেশে চলে গেলেন সত্যাশ্রয়ী মুক্তবুদ্ধি চর্চার অগ্রপথিক সেলিম বাগেরহাটে ট্রলির ধাক্কায় ২ জন নিহত লক্ষ্মীপুরে চাঁদাবাজির মামলা করায় প্রবাসীর বাড়ির  প্রাচীর ও ঘর ভাঙচুর, হুমকির অভিযোগ ক্রেতার অভাবে বিপুল পরিমাণ তেল নিয়ে সাগরে ভাসছে রাশিয়ার জাহাজ ফটিকছড়িতে ৭৮টি চোরাই মোবাইল ও কার সহ দুই যুবক গ্রেপ্তার  কুড়িগ্রামের রৌমারীতে মা ও শিশুকে হত্যার ঘটনায় ২ আসামীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব সাভারে জন্মদিনের কথা বলে বন্ধুদের নিয়ে প্রেমিকাকে গণধর্ষণ ঘিওরে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ মামলায় এক যুবককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড সমুদ্রে ট্রলার ডুবি, ১০ ঘণ্টা পর ১৫ জেলে জীবিত উদ্ধার




ভাঙ্গুড়ায় বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের পাশে খাল খনন

ভাঙ্গুড়ায় বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের পাশে খাল খনন




নূরুজ্জামান সবুজ 
পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলার পাড়-ভাঙ্গুড়া ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের পাশের খাল থেকে গভীরভাবে মাটি কেটে বিক্রি করে কয়েক লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ রয়েছে স্থানীয় ইউপি সদস্য হারুন অর-রশিদের বিরুদ্ধে। এ কারণে তাকে তিনদিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠিয়েছে পাবনা পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ। হারুন পাউবোর ওই খাল সংস্কারের নামে গভীর করে অতিরিক্ত মাটি কেটে বিক্রি করে আসছিল। ফলে আসছে বর্ষায় খালের পাশের বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ধসে যাওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছে। এ সংক্রান্ত একটি সংবাদ মিডিয়ায়  প্রকাশিত’র পর এই ব্যবস্থা নিল পাবনা পানি উন্নয়ন বোর্ড।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড ১৯৮৩/৮৪ সালে সিরাজগঞ্জের বাঘাবাড়ী থেকে রাজশাহীর চারঘাট পর্যন্ত বন্যা নিয়ন্ত্রণ ওয়াপদা বাঁধ নির্মাণ করে। বাঁধের মাটি যোগান দিতে এক পাশে খালের সৃষ্টি হয়। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, প্রায় ১ হাজার মিটার লম্বা ও ১শ মিটার চওড়া খাল থেকে গভীরভাবে মাটি কেটে নেয়া হয়েছে। প্রায় ১৫ থেকে ২০ ফিট গভীর এ সকল গর্ত। এক্সকেভেটর দিয়ে খোঁড়া হয়েছে এ সকল গর্ত। গর্তের মাটি হারুন ও তার লোকজন নিজ উপজেলা এ পার্শ্ববর্তী উপজেলায় ৬শ থেকে ৭শ টাকায় প্রতি গাড়ি মাটি বিক্রি করেছেন। পানি উন্নয়ন বোর্ড পাবনার সহকারী পরিচালক (ভূমি ও রাজস্ব) মোশাররফ হোসেন বলেন, ঘটনার সরেজমিনে তদন্তের জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডের দুইজন সদস্যকে পাঠিয়ে খনন কাজ বন্ধ করা হয়েছে।
ভাঙ্গুড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) নাহিদ হাসান খান বলেন, বিষয়টি গণমাধ্যমে জানার পরেই উপজেলা প্রশাসন খননকাজ বন্ধ করে দেয়। পরে এ সংক্রান্ত একটি চিঠি পায় উপজেলা প্রশাসন। এ ছাড়া খননের বিষয়ে জানাতে সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্যকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
আলোকিত প্রতিদিন/ দ ম দ

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন











All rights reserved. © Alokitoprotidin
এস কে. কেমিক্যালস এগ্রো লি: এর একটি মিডিয়া প্রতিষ্ঠান