আজ রবিবার, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ ।   ৩ মার্চ ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

 প্রতিবন্ধী নারীদের অন্তর্ভুক্তিমূলক সেবা নিশ্চিতে গনমাধ্যমের ভূমিকা শীর্ষক সেমিনার

-Advertisement-

আরো খবর

- Advertisement -
- Advertisement -

“বাইরে থেকে দেখে প্রতিবন্ধীতার বিচার করা চূড়ান্ত এক বোকামি। কারণ আমাদের এই চামড়ার চোখের দেখার বাইরেও অনেক কিছু লুপ্ত থাকে।

– রবার্ট এম হ্যানসেল।”

মাজেদুর রহমানঃ ফাউন্ডেশন ফর এ জাস্ট সোসাইটি এর তথ্য মতে, বিশ্বের মোট জনসংখ্যার ১৫ শতাংশ প্রতিবন্ধী মানুষ।সেই হিসাবে বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার ৯ থেকে ১৬ শতাংশ প্রতিবন্ধী মানুষ।যারা আমাদের পরিবার কিংবা সমাজে বরাবরই অবহেলিত, নিগৃহীত,সহিংসতার শিকার।এর পেছনে বেশ কতগুলো উল্লেখযোগ্য কারণ রয়েছে।অন্যায়কারীরা ভাবে প্রতিবন্ধী নারীরা দূর্বল,অসহায়, অন্যান্যরা বিরুদ্ধে লড়াই করার সক্ষমতা নেই, এডভোকেসি করার মতো কেউ নেই,আর্থিক ভাবে অস্বচ্ছল।প্রতিবন্ধীদের সার্বিক সহযোগিতা দিতে বা সহায়তা করে যাচ্ছে যে কয়েকটি প্রতিষ্ঠান তার মধ্যে উইমেন উইথ ডিজএ্যাবিলিটি ডেভেলপমেন্ট  (ডাব্লিউডিডিএফ) একটি। ২৫ নভেম্বর ২০২৩ শনিবার, উইমেন উইথ ডিজএ্যাবিলিটিজ ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন (WDDF) এর উদ্যোগে,উইমেনস ফান্ড এশিয়া’র আর্থিক সহায়তায়, বগুড়ার রেড চিলিস রেস্টুরেন্ট ও গেস্ট হাউসের কনফারেন্স হলে সংবাদ মাধ্যমে প্রতিবন্ধীতা সম্পর্কে ব্যাপক প্রচার ও প্রচারণার জন্য আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ইলেকট্রনিক,প্রিন্ট ও অনলাইন সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধিগণ ও ক্যামেরা পার্সন হয় প্রায় ৩০জন উপস্থিত ছিলেন।আমন্ত্রিত সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে প্রতিবন্ধী নারী ও কিশোরীদের অন্তর্ভুক্তিমূলক সেবা প্রাপ্তি বিষয়ে উপস্থাপনা করেন সভার সভাপতি,ডব্লিউডিডিএফ এর নির্বাহী পরিচালক আশরাফুন নাহার মিষ্টি।একই সাথে ডাব্লিউবিডিএফ এর কার্যক্রম সম্পর্কে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দেন। এসময় প্রতিবন্ধী ও প্রতিবন্ধকতার ধরণ, প্রতিবন্ধীদের নিয়ে সমাজের ধারণা ও দৃষ্টিভঙ্গি,টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার বিভিন্ন গোল, অন্তর্ভুক্তিমূলক ও বৈষম্যহীন সমাজ নিয়ে প্রচার মাধ্যমের ভূমিকা নিয়ে আলোচনা করা হয়।একই সাথে প্রতিবন্ধী ব্যক্তির অধিকার ও সুরক্ষা আইন, ২০১৩ অনুযায়ী, প্রতিবন্ধী ব্যক্তির ২১টি অধিকার,প্রতিবন্ধী ব্যক্তির সাথে ঘটে যাওয়া অন্যায় বা সহিংসতার বিরুদ্ধে বিভিন্ন শাস্তি ও মামলা বা অভিযোগ করার ক্ষেত্র এবং এধরনের অন্যায় সংগঠিত হলে ডব্লিউডিডিএফ কি ধরনের ভূমিকা এবং সহায়তা প্রদান করে থাকে সে বিষয়গুলো  তুলে ধরেন। সেই সাথে প্রতিবন্ধী নারীদের জন্য সহনীয় ও উপযোগী পরিবেশ প্রস্তুত,তাদের প্রতি সংঘটিত যে কোন বৈষম্যরোধ,জনসচেতনতা তৈরীতে সহযোগিতা সহ প্রতিবন্ধীদের সমাজে এগিয়ে নেওয়ার প্রত্যয়ে মিডিয়া প্রতিবেদন প্রস্তুত ও প্রকাশ করতে আহ্বান জানান। তাছাড়া প্রতিবন্ধী ব্যক্তির ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য কিছু ভাষার ব্যবহার এবং প্রতিবন্ধী ব্যক্তিকে ‘বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন ব্যক্তি’ উল্লেখ না করে প্রতিবন্ধী ব্যক্তি হিসেবেই গণমাধ্যমে প্রচার করতে আহ্বান জানান। তিনি আরও বলেন, সরকার সমাজসেবা অধিদপ্তর ও বিভিন্ন বিশেষ প্রকল্পের মাধ্যমে দেশব্যাপী প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নে আগের যেকোন সময়ের চেয়ে বর্তমানে ইতিবাচক পন্থায় কাজ করে যাচ্ছে। তারপরেও বগুড়াসহ সারাদেশে এখনো প্রতিবন্ধী জনগগোষ্ঠীর একটা বড় অংশ তাদের অধিকার ও আইন সম্পর্কে অজ্ঞ যারা সচেতনতা ও সহযোগিতার অভাবে নানা স্থানে অবহেলিত হচ্ছে। এদের মাঝে অনেকে এখনো কর্মমুখী হতে পারেনি।যাদের মাঝে স্বপ্ন ও সম্ভাবনার দুয়ার উন্মোচন করা গেলে তারাও দেশের সম্পদে পরিণত হবে। সংস্থাটির কর্মসূচি সমন্বয়কারী হুমায়ুন কবীরের সঞ্চালনায় ও সংস্থার বগুড়া শাখার কো-অর্ডিনেটর আব্দুল্লাহ আল ফয়সাল পরিচালনায় সেমিনারে মুক্ত আলোচনায় বক্তব্য রাখেন দৈনিক ইনকিলাবের বগুড়া ব্যুরো প্রধান মহসিন আলী রাজু, বাংলাদেশ প্রতিদিনের নিজস্ব প্রতিবেদক আব্দুর রহমান টুলু, আরটিভি বগুড়ার প্রতিবেদক জিএম সজল, আমাদের কণ্ঠের ফজলে রাব্বী ডলার, সময় টিভির প্রতিবেদক জুম্মান সাদিক জ্যাভলিন, দৈনিক চাঁদনী বাজারের স্টাফ রিপোর্টার আব্দুস সালাম, ইন্ডিপেনডেন্ট টিভির স্টাফ রিপোর্টার জজিফ হোসেন প্রতীক, মোহনা টিভির প্রতিনিধি আতিক রহমান, দেশ টিভির বগুড়া প্রতিনিধি সঞ্জু রায়, ঢাকা পোস্টের বগুড়া প্রতিনিধি আসাফউদ্দৌলা নিয়ন,দৈনিক আলোকিত প্রতিদিন’র বগুড়া প্রতিনিধি মাজেদুর রহমান,রাইজিং বিডির এনাম আহম্মেদ, প্রতিদিনের বাংলাদেশের অরুপ রতন, দৈনিক সমকালের আব্দুল আওয়াল, এনসিএন এর রিপোর্টার ববিন রহমান, উত্তরাঞ্চলের খবরের এমআই মিরাজ প্রমুখ। বক্তারা বগুড়া অঞ্চলে ডাব্লিউডিডিএফ এর সার্বিক কার্যক্রমের প্রশংসা করেন এবং ইতিবাচক কাজের এই ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখার আহ্বান জানান। এছাড়াও তারা প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠির শিক্ষা, আইনি সহায়তা ও কর্মমুখীকরণে আরো দৃশ্যমান উদ্যোগ গ্রহণের অনুরোধ জানান সংশ্লিষ্টদের যে কাজে প্রত্যেকে তাদের নিজ অবস্থান থেকে সহযোগিতার প্রতিশ্রুতি দেন। সেমিনারের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিলেন সংস্থার হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা ও উপজেলা সমন্বয়কারী গোলাম কিবরিয়া। সেমিনারে প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার ৩০ জন সাংবাদিক উপস্থিত ছিলেন।

আলোকিত প্রতিদিন/এপি
- Advertisement -
- Advertisement -