আজ রবিবার, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ ।   ৩ মার্চ ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

দাবি এখন একটাই শেখ হাসিনার পদত্যাগ: মীর্জা ফখরুল

-Advertisement-

আরো খবর

মো:রবিউল ইসলাম:
১০ দফা দাবী আদায়ের লক্ষ্যে বিএনপির বিশাল সমাবেশ অনুষ্ঠিত হল লালমনিরহাটে সমাবেশে বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির মহাসচিব মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন এখন একটাই দফা, একটাই দাবী শেখ হাসিনার অধীনে কোন নির্বাচন হবেনা, শেখ হাসিনার পদত্যগ চাই। সমাবেশে বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দ জেলা বিএনপির সভাপতি আসাদুল হাবিব দুলু সহ উপজেলার নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।
২০ মে শনিবার লালমনিরহাট জেলা কালেক্টরেট মাঠ প্রাঙ্গনে বিকাল ৩টায় জেলা বিএনপির উদ্দোগে বিশাল সমাবেশ অনুষ্ঠিত হলো। সকাল থেকে বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতা কর্মী বৃন্দ কুড়িগ্রাম,রংপুর, লালমনিরহাট সহ আশ পাশের জেলা,বিভিন্ন উপজেলা, ইউনিয়ন,থেকে মিছিল সহকারে কালেক্টরট মাঠে আসতে থাকে,বিকাল ৩ টা নাগাদ সমাবেশ স্থল কানায় কানায় পূর্ন হয়ে আশপাশের রাস্তা ছাড়িয়ে যায়। বিকাল সাড়ে ৩ টার কিছু পরে সমাবেশস্থলে একে একে প্রবেশ করেন প্রধান অতিথি বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির মহাসচিব মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর,বিশেষ অতিথি বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির আন্তর্জাতিক উইং এর সদস্য ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা,কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার হাসান রাজিব প্রধান,সভাপতিত্ব করেন বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও লালমনিরহাট জেলা বিএনপির সভাপতি আসাদুল হাবিব দুলু।
সমাবেশ কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দের পাশাপাশি বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সহ- সভাপতি অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম রফিক,রোকনুদ্দিন বাবুল,জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক হাফিজুর রহমান বাবলা,যুগ্ন সম্পাদক একে এম মমিনুল হক,সাংগঠনিক সম্পাদক আফজাল হোসেন,কালিগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক ও চন্দ্রপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম,পাটগ্রাম পৌর বিএনপির সভাপতি মোস্তফা সালাউজ্জামান,আদিতমারি উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব ছালেকুজ্জামান প্রামানিক সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন,বর্তমান সরকার দেশটাকে ধব্বংশ করে ফেলেছে শিক্ষা, স্বাস্থ্য,ব্যাংক,বীমা খাত লুটপাট করে দেশের টাকা পাচার করেছে বিদেশে, ১০টাকা কেজি চাল খাওয়াবে বলেছিল ,ঘরে ঘরে চাকুরী দিবে বলেছিল করতে পারেনি, প্রতিবাদ করলে নেমে আসে জুলুম নির্যাতন মিথ্যা মামলা কারন তারা গনতন্ত্রে বিশ্বাস করেনা। সারা দেশে ৪০ লক্ষ নেতা কর্মীর নামে মিথ্যে মামলা দিয়েছে এই ফ্যাসিষ্ট সরকার,এখন দাবী একটাই শেখ হাসিনার পদত্যাগ করতে হবে,দলীয় সরকারের অধীনে এদেশে নির্বাচন হবে না,বিএনপি এই নির্বাচন করতে দেবে না।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির আন্তর্জাতিক উইং এর সদস্য ব্যারিস্টার রমিন ফারহানা বলেন,ভোট চোর সরকারের দিনে ভোট করার সাহস নেই বলে রাতে পুলিশ, বিজিবি, প্রশাসন দিয়ে ভোট করে ক্ষমতায় এসেছে,২০১৪ এবং ২০১৮ সালের মত রাতের ভোট ২০২৪সালে করতে চাইলে এই সরকার পাবেনা, কারন বাংলার ১৭কোটি মানুষ এই সরকার কে টেনে হেঁচরে নামাতে এখন প্রশ্তুত রয়েছে।এই সরকারের সকল অপকর্মের জবাব কড়ায় গন্ডায় এদেশের জনগন বুঝিয়ে দিবে,বিএনপি হিংসার রাজনিতী করেনা প্রতিশোধের রাজনিতী কখনো করেনি ভবিষ্যতে করবেনা, বিএনপি কে দেশের জনগন ক্ষমতায় আনবে তখন আওয়ামিলীগ পালানোর পথ খুঁজে পাবেনা।
সভাপতির বক্তব্যে বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা বিএনপির সভাপতি আসাদুল হাবিব দুলু বলেন,সরকার কে রাতের ভোট আর করতে দেওয়া হবেনা,বিএনপির এখন একটাই দাবী শেখ হাসিনার অধীনে কোন নির্বাচন হবেনা,শেখ হাসিনা কে পদত্যাগ করতে বাধ্য করা হবে এজন্য দলের নেতা কর্মীরা প্রস্তুত রয়েছে।
আলোকিত প্রতিদিন/ ২০ মে -২০২৩/মওম
- Advertisement -
- Advertisement -