আজ বৃহস্পতিবার, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ ।   ৩০ মে ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

টাইটানিকের ধ্বংসাবশেষের বিরল ভিডিও প্রকাশ, যা আগে দেখা হয়নি

-Advertisement-

আরো খবর

- Advertisement -
- Advertisement -

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

সমুদ্রের তলদেশে পড়ে থাকা বিশ্ববিখ্যাত জাহাজ টাইটানিকের নতুন ভিডিও প্রকাশ করেছে একটি সংস্থা। তারা জানিয়েছে, এ ভিডিওতে টাইটানিকের যে চিত্র ওঠে এসেছে তা আগে কখনো দেখা যায়নি।

এক শতাব্দীর বেশি সময় আগে ১৯১২ সালে আটলান্টিক মহাসাগরে ডুবে যায় টাইটানিক নামের বিলাসবহুল প্রমোদতরি। ৭৩ বছর পর ১৯৮৫ সালে সাগরের তলদেশে এর ধ্বংসাবশেষ শনাক্ত হয়। ১৯৮৬ সালে সমুদ্রবিজ্ঞান–বিষয়ক মার্কিন গবেষণা প্রতিষ্ঠান উডস হোল ওশেনোগ্রাফিক ইনস্টিটিউশনের গবেষক দল ধ্বংসাবশেষটির ভিডিও ধারণ করেন। তখনকারই একটি বিরল ভিডিও সম্প্রতি প্রকাশ করেছে ডব্লিউএইচওআই।

আটলান্টিক মহাসাগরের প্রায় দুই মাইল গভীরে ভিডিওটি ধারণ করা হয়েছে। একটানা ধারণ করা ৮০ মিনিটের ভিডিও ফুটেজটির বেশির ভাগ অংশই এত দিন অপ্রকাশিত ছিল। এ ভিডিওতে ডুবে যাওয়া জাহাজটির ভেতরের অবস্থা দেখা গেছে। জাহাজের ডেক এবং বিভিন্ন সরঞ্জাম দেখা গেছে।

- Advertisement -

টাইটানিক ডুবে যাওয়ার পর ধ্বংসাবশেষ খুঁজে পেতে নানা প্রচেষ্টা চলছিল। অনেক বছরের চেষ্টার পর ১৯৮৫ সালের সেপ্টেম্বরে রবার্ট ব্যালার্ডের নেতৃত্বে একটি দল সাগরের তলদেশে ধ্বংসাবশেষটি খুঁজে পেতে সক্ষম হয়।

ডব্লিউএইচওআইয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ১৯৮৫ সাল নাগাদ  নর নামের একটি গবেষণা জাহাজ থেকে ক্যামেরাটি পরিচালনা করা হয়েছিল। এর মধ্য দিয়ে প্রথমবারের মতো মহাসাগরের ১২ হাজার ৪০০ ফুটের বেশি গভীরে পড়ে থাকা জাহাজটির ধ্বংসাবশেষের ছবি তোলা হয়।

পরের বছর ১৯৮৬ সালে আলভিন নামের একটি ডুবোজাহাজে চড়ে ডব্লিউএইচওআইয়ের একটি দল প্রথমবারের মতো সশরীর ডুবে যাওয়া জাহাজটির ধ্বংসাবশেষ দেখতে সাগরের তলদেশে যায়। দূরনিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে ডুবোজাহাজটি পরিচালনা করেন জ্যাসন জুনিয়র। প্রকাশিত ভিডিওটি সে সময়ই ধারণ করা হয়েছিল।

টাইটানিক জাহাজ তৈরির সময় এটিকে অনেকটাই দুর্ভেদ্য জাহাজ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছিল। জাহাজের স্বত্বাধিকারী প্রতিষ্ঠান ঘোষণা করেছিল, তাদের জাহাজটি কোনো দিন ডুববে না। ১৯১২ সালের ১০ এপ্রিল যুক্তরাজ্যের সাউদাম্পটন থেকে প্রমোদতরিটি প্রথম বাণিজ্যিক যাত্রা শুরু করে। টাইটানিকের গন্তব্য ছিল যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক। যাত্রা শুরুর তিন দিন পর ১৯১২ সালের ১৪ এপ্রিল আটলান্টিকে একটি বিশাল বরফ খন্ডের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে টাইটানিক ডুবে যায়। ওই ঘটনায় দেড় হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়।

এই জাহাজডুবির ঘটনাকে উপজীব্য করে ১৯৯৭ সালে চলচ্চিত্র পরিচালক জেমস ক্যামেরনের নির্মিত ‘টাইটানিক’ চলচ্চিত্রটি মুক্তি পায়। চলচ্চিত্রটি মুক্তির ২৫ বছর পূর্তিতে এটি আবারও মুক্তি দেওয়া হয়েছে। আর একই সময়ে টাইটানিকের বিরল ভিডিওচিত্রটিও প্রকাশ করা হল।

আলোকিত প্রতিদিন/ ১৭ মে -২০২৩/মওম
- Advertisement -
- Advertisement -