3:13 pm |আজ বৃহস্পতিবার, ১২ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | ২৬শে মে ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৪শে শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরি

সংবাদ শিরোনাম:
আবার ঢাবিতে ছাত্রদল-ছাত্রলীগ সংঘর্ষ সংসদ ভেঙে দিয়ে নির্বাচন দিতে সরকারকে ৬ দিনের সময় দিলেন ইমরান খান না ফেরার দেশে চলে গেলেন সত্যাশ্রয়ী মুক্তবুদ্ধি চর্চার অগ্রপথিক সেলিম বাগেরহাটে ট্রলির ধাক্কায় ২ জন নিহত লক্ষ্মীপুরে চাঁদাবাজির মামলা করায় প্রবাসীর বাড়ির  প্রাচীর ও ঘর ভাঙচুর, হুমকির অভিযোগ ক্রেতার অভাবে বিপুল পরিমাণ তেল নিয়ে সাগরে ভাসছে রাশিয়ার জাহাজ ফটিকছড়িতে ৭৮টি চোরাই মোবাইল ও কার সহ দুই যুবক গ্রেপ্তার  কুড়িগ্রামের রৌমারীতে মা ও শিশুকে হত্যার ঘটনায় ২ আসামীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব সাভারে জন্মদিনের কথা বলে বন্ধুদের নিয়ে প্রেমিকাকে গণধর্ষণ ঘিওরে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ মামলায় এক যুবককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড




ধর্ষণ মামলার আসামীর সাথে গোপনে মিটমাটঃ এস আই ফরিদ ক্লোজড

ধর্ষণ মামলার আসামীর সাথে গোপনে মিটমাটঃ এস আই ফরিদ ক্লোজড




সফি সুমন

আশুলিয়ায় ধর্ষণের ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা না নিয়ে অভিযুক্তের সঙ্গে ভুক্তভোগীর টাকার বিনিময়ে মীমাংসার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় পুলিশের এসআই ফরিদুল আলমের বিরুদ্ধে। বিষয়টি জানাজানি হলে তড়িঘড়ি করে ভুক্তভোগীকে বাদী করে আসামির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করান পুলিশের সেই এসআই! গ্রেপ্তার করা হয় অভিযুক্ত আসামিকে। ঘটনার পর পুলিশের ঐ কর্মকর্তাকে আশুলিয়া থানা থেকে ক্লোজ করে পুলিশ লাইনসে সংযুক্ত করা হয়েছে।  ১২ এপ্রিল মঙ্গলবার  তার ক্লোজ হওয়ার তথ্য নিশ্চিত করেন আশুলিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জিয়াউল ইসলাম। অবশ্য পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, ধর্ষণ ঘটনা মীমাংসার সঙ্গে এই সিদ্ধান্তের কোনো সম্পর্ক নেই।  আশুলিয়ার ঘোষবাগ এলাকার স্থানীয় সাকিব ভূইয়ার (২৮) বিরুদ্ধে এক পোশাক শ্রমিক নারীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে। অভিযুক্ত সাকিব ভূইয়া আশুলিয়ার ঘোষবাগ এলাকার শাহ আলম ভূঁইয়ার ছেলে। তিনি ঘোষবাগে ইলেকট্রনিকস এবং ফার্নিচারের ব্যবসা করতেন।  এজাহার থেকে জানা যায়, তিন থেকে চার মাস আগে তার দোকানে গেলে অভিযুক্তের সঙ্গে পরিচয় হয় ভুক্তভোগীর। এরপর তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পরে বিয়ের প্রলোভনে একাধিকবার ধর্ষণ করেন বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। গত ৬ মার্চ সর্বশেষ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। এরপর থেকে বিয়ের কথা বললে সেই নারীকে টালবাহানা করে ঘুরাতে থাকেন ওই যুবক। জানা গেছে, ভুক্তভোগী নারী থানায় ২১ মার্চ প্রথম লিখিত অভিযোগ করেন। সেই অভিযোগের তদন্তের দায়িত্ব পড়ে আশুলিয়া থানার এসআই মো. ফরিদুল আলমের ওপর। পরে অভিযুক্তের সঙ্গে আঁতাত করে টাকার বিনিময়ে ২৬ মার্চ ঘটনাটি মীমাংসা করেন বলে ওই নারীর অভিযোগ। পরে জানাজানি হলে গত ১১ এপ্রিল ভুক্তভোগী নারীকে থানায় ডেকে নিয়ে আসামি সাকিবের বিরুদ্ধে মামলা নেয় পুলিশ। সেদিনই তাকে গ্রেপ্তারও করা হয়। ভুক্তভোগী তরুণী বলেন, ‘‘এর আগেই এ ঘটনার মীমাংসা করা হয়েছিল। এসআই ফরিদ এবং আরো কয়েকজন স্থানীয় লোক থানায় বসেই আমাকে আড়াই লাখ টাকা দিয়ে মীমাংসা করায়। তারা বলেন, ‘মামলায় গেলে অনেক ঝামেলা, অনেক খরচ, তুমি মীমাংসা করে নাও। ’ এ বিষয়ে আমার আর কোনো অভিযোগও ছিল না। সেই টাকা থেকে আমার কাছে থেকে বিভিন্ন খরচের কথা বলে ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন উপস্থিতরা। আমি ৪০ হাজার টাকা টেবিলের ওপর রেখে চলে আসি। এরপর থেকে আমি আমার মতো এলাকায় বসবাস করে আসছিলাম। আমি এ বিষয়ে আর কোনো পদক্ষেপ নিতে চাইনি আমার পারিপার্শ্বিক অবস্থার কথা বিবেচনা করে। কিন্তু হঠাৎ করে এসআই ফরিদ আমাকে ফোন দিয়ে বলেন, ‘বোন আমার চাকরিটা বাঁচাও। তুমি থানায় এসে একটা স্টেটমেন্ট দিয়ে যাও। ’ পরে আমাকে থানায় নিয়ে মামলা গ্রহণ করেন। আমি যখন মামলা করতে চেয়েছি তখন আমার মামলা নেওয়া হয়নি। আর পরে আমি যখন সব ভুলে স্বাভাবিক জীবন যাপন করতে চেয়েছি, তখন আমাকে এই পথে আনা হলো। আমাকে হেনস্থা করা হয়েছে।’’ এ বিষয়ে এসআই ফরিদুল আলম মুঠোফোনে বলেন, ‘আমি আজ থেকে জেলা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত। ’ টাকার বিনিময়ে ধর্ষণের ঘটনা মীমাংসার চেষ্টা করা হয়েছিল―এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমি কারো কাছ থেকে টাকা নিইনি। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামিও গ্রেপ্তার হয়েছে। ’ আশুলিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জিয়াউল ইসলাম বলেন, ‘মামলাসংক্রান্ত একটি জটিলতার নিয়ে এসআই ফরিদুল আলমকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে। ’ এসআই ফরিদুল আলমের ক্লোজের বিষয়ে ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন সরদার বলেন, ‘এটা কোনো শাস্তিমূলক ব্যবস্থা না, এটি অভ্যন্তরীণ বিষয়। ’

আলোকিত প্রতিদিন/ ১৩ এপ্রিল ,২০২২/ মওম

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন











All rights reserved. © Alokitoprotidin
এস কে. কেমিক্যালস এগ্রো লি: এর একটি মিডিয়া প্রতিষ্ঠান