2:19 pm |আজ বৃহস্পতিবার, ১২ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | ২৬শে মে ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৪শে শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরি

সংবাদ শিরোনাম:
আবার ঢাবিতে ছাত্রদল-ছাত্রলীগ সংঘর্ষ সংসদ ভেঙে দিয়ে নির্বাচন দিতে সরকারকে ৬ দিনের সময় দিলেন ইমরান খান না ফেরার দেশে চলে গেলেন সত্যাশ্রয়ী মুক্তবুদ্ধি চর্চার অগ্রপথিক সেলিম বাগেরহাটে ট্রলির ধাক্কায় ২ জন নিহত লক্ষ্মীপুরে চাঁদাবাজির মামলা করায় প্রবাসীর বাড়ির  প্রাচীর ও ঘর ভাঙচুর, হুমকির অভিযোগ ক্রেতার অভাবে বিপুল পরিমাণ তেল নিয়ে সাগরে ভাসছে রাশিয়ার জাহাজ ফটিকছড়িতে ৭৮টি চোরাই মোবাইল ও কার সহ দুই যুবক গ্রেপ্তার  কুড়িগ্রামের রৌমারীতে মা ও শিশুকে হত্যার ঘটনায় ২ আসামীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব সাভারে জন্মদিনের কথা বলে বন্ধুদের নিয়ে প্রেমিকাকে গণধর্ষণ ঘিওরে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ মামলায় এক যুবককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড




জুমার দিনে যে ৩টি ভুল কাম্য নয়

জুমার দিনে যে ৩টি ভুল কাম্য নয়




ধর্ম ডেস্ক

জুমআর দিন হলো সপ্তাহের সর্বোত্তম দিন। এ দিনকে মুসলিম উম্মাহর জন্য একটি বিশেষ দিন হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। জুমাবারকে মুসলমানদের জন্য সাপ্তাহিক ঈদের দিন বলেও আখ্যায়িত করা হয়েছে।হাদিস শরিফে এসেছে, জুমার দিন কেবল মুহাম্মাদি উম্মাতেরই বৈশিষ্ট্য। নবীজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, আমাদের পূর্ববর্তী উম্মাতকে জুমার দিন সম্পর্কে আল্লাহ তায়ালা অজ্ঞ রেখেছেন। ইহুদিদের ফজিলতপূর্ণ দিবস ছিল শনিবার। খ্রিস্টানদের ছিল রোববার। অতঃপর আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে দুনিয়ায় পাঠালেন এবং জুমার দিনের ফজিলত দান করলেন। সিরিয়ালে শনি ও রোববারকে শুক্রবারের পেছনে রাখা হয়েছে। কারণ, দুনিয়ার এই সিরিয়ালের মতো কেয়ামতের দিনও ইহুদি-খ্রিস্টানরা মুসলমানদের পেছনে থাকবে। আমরা উম্মত হিসেবে সবার শেষে এলেও কেয়ামতের দিন সবার ওপরে থাকব। (মুসলিম-১৪৭৩)।

জুমার নামাজ প্রতিটি মুসলমানের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। বিশ্বের প্রায় সব মুসলিম জুমা আদায় করেন। কিন্তু অনিচ্ছা সত্ত্বেও অনেক সময় জুমার ক্ষেত্রে কিছু ভুলত্রুটি হয়ে যায়। সে ধরনের ৩টি ভুল নিয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা—

পরিচ্ছন্ন না হয়ে মসজিদে গমন
পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা ঈমানের অঙ্গ। আর জুমায় যেতে পরিচ্ছন্ন হওয়া আবশ্যিক। সে ক্ষেত্রে গোসল করে নেওয়া উত্তম। আবু সাইদ খুদ্‌রি (রা.) থেকে বর্ণিত হাদিসে রাসুল (সা.) বলেছেন—

জুমার দিন প্রত্যেক প্রাপ্তবয়স্কের জন্য গোসল করা ওয়াজিব। পাশাপাশি মিসওয়াক করা চাই এবং সম্ভব হলে সুগন্ধি ব্যবহার করা উচিত। (বুখারি, হাদিস : ৮৮০)

আজানের পর অন্য কাজে মগ্নতা
জুমার আজানের পর একান্ত প্রয়োজন ছাড়া অন্য কাজ নিষিদ্ধ। তাড়াতাড়ি মসজিদে চলে যাওয়া জরুরি। আয়েশা (রা.) বলেন—‘লোকজন নিজেদের কাজকর্ম নিজেরাই করতেন। যখন তারা দুপুরের পরে জুমার জন্য যেতেন, তখন সে অবস্থায়ই চলে যেতেন। তাই তাদের বলা হলো, যদি তোমরা গোসল করে নিতে ভালো হতো…।’ (বুখারি, হাদিস: ৯০৩; মুসলিম, হাদিস: ৮৪৭)।

খুতবার সময় কথা বলা
জুমার খুতবা শোনা উপস্থিত মুসল্লিদের কর্তব্য। হাদিসে রাসুল (সা.) খুতবার সময় কথা বলতে নিষেধ করেছেন। আবু হুরায়রাহ (রা.) থেকে বর্ণিত রয়েছে, প্রিয়নবী (সা.) বলেন, ‘জুমার দিন ইমাম খুতবা দেওয়া অবস্থায় যদি তোমার পাশের মুসল্লিকে ‘চুপ থাকো’ বলো, তাহলে তুমি একটি অনর্থক কথা বললে।’ (বুখারি, হাদিস: ৯৩৪, মুসলিম, হাদিস: ৮৫১)।

প্রসঙ্গত খুতবার সময় কেউ কথা বললে তাকে চুপ থাকতে বলাও উচিত নয়।

আতারা // এপি

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন











All rights reserved. © Alokitoprotidin
এস কে. কেমিক্যালস এগ্রো লি: এর একটি মিডিয়া প্রতিষ্ঠান