4:20 am |আজ মঙ্গলবার, ১৯শে শ্রাবণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ৩রা আগস্ট ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৩শে জিলহজ ১৪৪২ হিজরি

সংবাদ শিরোনাম:
আশুলিয়ায় চলন্ত বাসে গণধর্ষণ: গ্রেফতার ৬

আশুলিয়ায় চলন্ত বাসে গণধর্ষণ: গ্রেফতার ৬

 প্রতিনিধি,আশুলিয়া:
আশুলিয়া বোনের বাসা থেকে নিজ বাসায় যাওয়ার সময় চলন্ত বাসে এক নারীকে গণধর্ষণের অভিযোগে ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (২৮ মে) রাত পৌনে ১২টার দিকে সি অ্যান্ড বি বাইপাস সড়কের আশুলিয়া গরুর হাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী নারী বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় মামলা দায়ের করেছেন। শনিবার (২৯ মে) সকাল ৯ ঘটিকার সময় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. জিয়াউল ইসলাম। গ্রেফতারকৃতরা ঢাকার তুরাগ থানার গুলবাগ ইন্দ্রপুর ভাসমান গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে আরিয়ান (১৮), কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর থানার তারাগুনা এলাকার মৃত আতিয়ারের ছেলে সাজু (২০), নারায়নগঞ্জ জেলার বন্দর থানার ধামঘর এলাকার জহুর উদ্দিনের ছেলে মনোয়ার (২৪), বগুড়া জেলার ধুনট থানার খাটিয়ামারি এলাকার সুলতান মিয়ার ছেলে সুমন (২৪), বগুড়া জেলার ধুনট থানার খাটিয়ামারি এলাকার তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে সোহাগ (২৫) ও বগুড়া জেলার ধুপচাচিয়া থানার জিয়ানগর গ্রামের সামছুলের ছেলে সাইফুল ইসলাম (৪০)। তারা সবাই তুরাগ থানার কামারপারা ভাসমান এলাকায় ভাড়া থেকে আব্দুল্লাহপুর-বাইপাইল-নবীনগর মহাসড়কে মিনিবাস চালাতো। মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, ভুক্তভোগীর বোন মানিকগঞ্জ জেলায় ভাড়াটিয়া হিসাবে বসবাস করেন। তিনি তার বোনের জন্য একটি মোবাইল ফোন কিনে নিয়ে গতকাল ২৮ মে তার বোনের বাসা মানিকগঞ্জ যান। সেখান থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার দিকে নারায়নগঞ্জের উদ্দেশ্য বাসে উঠলে রাত ৮ টার দিকে আশুলিয়ার নবীনগর বাসস্ট্যান্ডে তাকে নামিয়ে দেয়। রাত ৯টার দিকে নিউগ্রাম বাংলা মিনিবাসের চালক সুমন, হেলপার আসামি মনোয়ার ও সুপারভাইজার সাইফুল ইসলাম এসে টঙ্গী স্টেশন রোডের কথা বলে ৩৫ টাকা ভাড়া চায়। পরে সঙ্গীয় একজনকে নিয়ে মিনিবাসে উঠলে গন্তব্যে যাওয়ার আগেই সকল যাত্রীদের নামিয়ে দিয়ে ভুক্তভোগীকে জোরপূর্বক বাসে করে নিয়ে আবার নবীনগরে ফিরে আসার সময় বাসের জানালা-দরজা আটকিয়ে তাকে দলবদ্ধ ধর্ষণ করে বাসের চালক, হেলপারসহ ৬ জন। ভুক্তভোগী নারীর চিৎকার চেচামেচি টহল পুলিশের নজরে আসে। পরে বাসটি থামিয়ে ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করে ৫ জনকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়। সাইফুল নামে একজন পালিয়ে গেলেও রাতে তাকে আবার গ্রেফতার করা হয়। এ বিষয় নিয়ে আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জিয়াউল ইসলাম বলেন, গতরাতেই অভিযুক্তদের আটক করা হয়েছে। ভুক্তভোগীর দায়েরকৃত মামলায় তাদের গ্রেফতার দেখিয়ে আজ দুপুরে আদালতে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেছে। ভুক্তভোগী নারীকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে সকল আইনী প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।

আলোকিত প্রতিদিন/২৯ মে, ২০২১/ দ ম দ

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

All rights reserved. © Alokitoprotidin
এস কে. কেমিক্যালস এগ্রো লি: এর একটি মিডিয়া প্রতিষ্ঠান