4:42 am |আজ মঙ্গলবার, ১৯শে শ্রাবণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ৩রা আগস্ট ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৩শে জিলহজ ১৪৪২ হিজরি

সংবাদ শিরোনাম:
বদরমোকাম মসজিদ কমপ্লেক্স পরিদর্শন করলেন কউক চেয়ারম্যান  

বদরমোকাম মসজিদ কমপ্লেক্স পরিদর্শন করলেন কউক চেয়ারম্যান  

আবু সায়েম, কক্সবাজার:
কক্সবাজারের ঐতিহ্যবাহী বদরমোকাম জামে মসজিদে জুমার  নামাজ আদায়  এবং মসজিদ কমপ্লেক্স পরিদর্শন করেন কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান লে.কর্নেল, ( অবঃ) ফোরকান আহমদ। জুমার নামাজে খুতবার পর তিনি মুসল্লীদের উদ্দেশ্য বলেন, কক্সবাজার বদর মোকাম জামে মসজিদ ঐতিহ্যবাহী এবং কক্সবাজারের পুরাতন জামে মসজিদের একটি। ছোট বেলায় আমিও আমার মায়ের সাথে বদরমোকাম জামে মসজিদে আসছিলাম । বদরমোকামকে কক্সবাজারের ঐতিহ্য এবং দৃষ্টিনন্দন মসজিদ হিসেবে রুপান্তরিত করায় তিনি মসজিদ  কমিটির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক সহ বদরমোকাম মসজিদে  জড়িত সকল সদস্যদের  ভূয়সী প্রশংসা করেন । জুমার নামাজের পর বদরমোকাম কমপ্লেক্সের অফিস পরিদর্শন করেন কউক চেয়ারম্যান । এসময় মসজিদ কমিটির পক্ষ থেকে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যানকে ক্রেস্ট দিয়ে সম্মানিত করা হয়।  মসজিদ কমিটির পক্ষ থেকে  কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যানের নিকট ২ টি সুপারিশ করেন মসজিদ কমিটির সদস্যরা। মসজিদ কমিটির সভাপতি রফিকুল হুদা চৌধুরী বলেন, বদরমোকাম জামে মসজিদ কক্সবাজার সহ দক্ষিণ চট্টলার খুবই পুরাতন এবং ঐতিহ্যবাহী। বদরমোকাম মসজিদে দর্শানার্থী এবং পর্যটকরা দর্শন এবং পবিত্র ধর্মচর্চা করতে আসেন। তিনি কউক চেয়ারম্যানের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, বদরমোকাম মসজিদ  প্রবেশের মেইন রাস্তার পাশে যেন হযরত বদর শাহ আউলিয়ার নামে গেইট করার অনুমতি দেয়। কউক চেয়ারম্যান  মেইন রোডের রাস্তা নির্ধারণ করার পর, বদরমোকাম প্রবেশের মূল ফটকে  গেইট  করার সম্মতি প্রদান করেন। কক্সবাজার বদর মোকাম জামে মসজিদের সেক্রেটারি  হান্নান সাউদ বলেন, বদর মোকাম জামে মসজিদের পাশে বাকঁখালী নদীতে প্রতিদিন পৌরসভার ময়লা আবর্জনা ফেলার কারণে এলাকাবাসী সহ বদরমোকাম মসজিদে নামাজ  পড়তে আসা মুসল্লীদের ভোগান্তির বিষয়টি তুলে ধরেন। তিনি এ ব্যাপারে কউক চেয়ারম্যানের সহযোগিতা কামনা করেন। কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান লে.কর্ণেল (অবঃ)ফোরকান আহমদ বলেন, কক্সবাজার পৌরসভার ময়লা আবর্জনা ফেলার জন্য আলাদা স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে । বাকঁখালী নদীতে যাতে ময়লা আবর্জনা ফেলা না হয়, সেজন্য তিনি কক্সবাজার পৌরসভার মেয়রের সাথে এ ব্যাপারে কথা বলবেন বলে আশ্বস্ত করেন । তিনি বলেন, মানুষ  কক্সবাজার বদরমোকামে দূর দূরান্ত থেকে মসজিদ দর্শন এবং ধর্মচর্চা করতে আসেন। এলাকাবাসীসহ পর্যটকদের জন্য আলাদা পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন আরামদায়ক   ধর্ম উপাসনালয় হিসেবে বদরমোকাম অনন্য নিদর্শন স্থাপন করেছে। বদর মোকাম মসজিদ কমিটির সদস্যদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কারণে মসজিদটি এতো সুন্দর পরিপাটি ও মনোমুগ্ধকর   হিসেবে মুসলমানদের পবিত্র মনে স্থান করে নিয়েছে। যার কারণে হাজার হাজার মানুষ বদরমোকামে নামাজ আদায় করার জন্য দূর দূরান্ত থেকে ছুটে আসেন। বদরমোকাম জামে মসজিদে মুসল্লীদের উদ্দেশ্য কথা বলার সুযোগ দেওয়ায় এবং তাঁকে সম্মানিত করায় তিনি কক্সবাজার বদর মোকাম জামে মসজিদের সকল সদস্যের নিকট কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। মসজিদ কমিটির অফিস কমপ্লেক্সের সংক্ষিপ্ত আলোচনায় উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি  ও মসজিদ কমিটির সহসভাপতি  রেজাউল করিম, কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের সদস্যবৃন্দ,  সাংবাদিক সহ মসজিদ কমিটির সদস্যরা। পরে মসজিদ কমপ্লেক্সে কমিটি কর্তৃক আগত অতিথিদের দুপুরের খাবার পরিবেশন করা হয়।
আলোকিত প্রতিদিন / ২১ মে, ২০২১/ দ ম দ 

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

All rights reserved. © Alokitoprotidin
এস কে. কেমিক্যালস এগ্রো লি: এর একটি মিডিয়া প্রতিষ্ঠান