11:48 am |আজ শুক্রবার, ১২ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ২৭শে নভেম্বর ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

সংবাদ শিরোনাম:
ফুলবাড়ীতে মাস্ক না পরায় ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমানা কলাপাড়ায় স্বাস্থ্য-সহকারীদের বেতন-বৈষম্য নিরসনের দাবিতে কর্ম বিরতি পালন নাটোরে র‌্যাবের অভিযানে ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার সরকারের কাজ করার ক্ষমতা আছে, তবে বাঁধ নির্মাণে সময়ের প্রয়োজন- প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক গাইবান্ধা জেলা বারের নির্বাচনী তফশীল তিনদিনের মধ্যে ঘোষণা না করলে কর্মবিরতির হুশিয়ারী নোয়াখালী বেগমগঞ্জের আলোচিত অস্ত্রধারী ইমন গ্রেফতার গাইবান্ধার পলাশবাড়ী পৌরসভা নির্বাচনে প্রতীক পেলেন প্রার্থীরা সাভারে মেয়ে ও তার স্বামীর অত্যাচারের হাত থেকে বাঁচতে বাবা-মায়ের সংবাদ সম্মেলন  আশুলিয়ায় নিখোঁজের ১০দিন পর যুবকের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার : আটক-১ ডিএএমএম মানিকগঞ্জ শাখার উদ্যোগে পুরস্কার বিতরণ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত
কক্সবাজারের চকরিয়ায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ : ৪ একর বনভূমি উদ্ধার 

কক্সবাজারের চকরিয়ায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ : ৪ একর বনভূমি উদ্ধার 

আবু সায়েম, কক্সবাজার: কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের জুমনগর এলাকায় সংরক্ষিত বনাঞ্চল থেকে ১০টি বসতঘর উচ্ছেদ করা হয়েছে। এতে চিহ্নিত দখলদার বাহিনীর কবল থেকে প্রায় ৪ একর সরকারি বনভূমি জবর দখলমুক্ত করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) সকালে কক্সবাজার উত্তর বন বিভাগের সহকারী বন সংরক্ষক মোহাম্মদ সোহেল রানার নেতৃত্বে অভিযান চালানো হয়। উচ্ছেদ অভিযানে ফুলছড়ি রেঞ্জ কর্মকর্তা সৈয়দ আবু জাকারিয়া, ফাঁসিয়াখালী রেঞ্জ কর্মকর্তা মোঃ মাজহারুল ইসলাম, মেহেরঘোনা রেঞ্জ কর্মকর্তা মোঃ মামুন মিয়া, বিশেষ টহল টীমের দলনেতা একেএম আতা ইলাহী ও বিভিন্ন রেঞ্জের বিট কর্মকর্তা ও স্টাফগণ উপস্থিত ছিলেন। অভিযান প্রসঙ্গে ফুলছড়ি রেঞ্জ কর্মকর্তা সৈয়দ আবু জাকারিয়া জানান, সম্প্রতি জুমনগর এলাকায় ২০১৮-১৯ সালের স্বল্প মেয়াদী ১০ হেক্টর বাগানে অবৈধভাবে ঘর নির্মাণ করে চিহ্নিত দখলবাজরা। বিভিন্ন সময় বনকর্মীরা উচ্ছেদ অভিযানে গেলে দখলদারেরা তাঁদের বাধা দেয়। বিশেষ অভিযান চালিয়ে সামাজিক বনায়ন থেকে অবৈধভাবে গড়ে তোলা ১০টি বসতঘর উচ্ছেদ করা হয়েছে। তিনি জানান, সংরক্ষিত বনে কোনো অবৈধ বসতি গড়ে তুলতে দেওয়া হবে না। যেকোনো উপায়ে দখলদারদের প্রতিহত করা হবে। নেয়া হবে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা। কক্সবাজার উত্তর বন বিভাগের সহকারী বন সংরক্ষক মোহাম্মদ সোহেল রানা জানান, বন বিভাগের জমি দখলদার ও বন ধ্বংসকারীদের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে। দখলবাজদের ছাড় দেওয়া হবেনা। বন কর্মকর্তা ও স্থানীয়দের সূত্র থেকে জানা গেল, সরকারি বনভূমি দখল, বালি উত্তোলনসহ সব জবর দখলকাজে একটি প্রভাবশালী মহল জড়িত রয়েছে। দখলবাজির সাথে সরকারি দলের কয়েকজনের নামও উঠে এসেছে।

আলোকিত প্রতিদিন/২৭ অক্টোবর’২০/এসএএইচ

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

All rights reserved. © Alokitoprotidin
এস কে. কেমিক্যালস এগ্রো লি: এর একটি মিডিয়া প্রতিষ্ঠান