আজ বৃহস্পতিবার, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ ।   ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

অসহায় পরিবারের মুখের হাসিই হোক আপনার ঈদ-আনন্দ

-Advertisement-

আরো খবর

- Advertisement -
- Advertisement -

::মো. ইউনুছ আলী::

অদৃশ্য ছোঁয়াচে কঠিন কোভিড-১৯ প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের হাত থেকে প্রাণে রক্ষা পেতে হলে যথাযথ সুরক্ষায় নিরাপদে যার যার ঘরে থেকে ও স্বাস্হ্য অদিধপ্তরের বিধিনিষেধ পালন করে যার যার পরিবার-পরিজনসহ নিজে ও প্রতিবেশি মিলে বাঁচার চেষ্টা করতে হবে। অতীতে বহু ঈদে আমি-আপনি বাজার করেছি, বেঁচে থাকলে ভবিষ্যতে বহু ঈদের বাজার করতে পারবো। এ ঈদই তো জীবনের শেষ ঈদ নয়? তাই বাজারে হুমড়ি খেয়ে না পড়ে আসুন, নিতান্তই প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে যেন বের না হই। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে আপনা-আমার-আমাদের আদরের সন্তান, ভালোবাসার বয়োস্ক পিতামাতা ও পরশিকে বাঁচান।
পরিবারের মধ্যে কারো কোভিড-১৯ হলেসঠিকভাবে নিয়ম না মানলে পরিবারের অন্যান্যদেরও এ রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। আর এই রোগেও ভাইরাস সবার মাথার উপর দিয়ে ঘুরছে। তাকে সুযোগ দিলেই ধরে বসবে। বসছেও। বাংলাদেশে এই রোগে আক্রান্ত শনাক্তের সংখ্যা ৩০ হাজার ছাড়িয়েছে। মৃত্যুর সংখ্যাও নেহায়েত কম নয়।
বিশ্ব শক্তিশালী রাষ্ট্র আমেরিকাসহ সারা পৃথিবীতে মহামারীরূপ ধারন করে মানব সম্পদের ব্যাপক ক্ষতিসাধন করছে। এখনো এ রোগের তেমন কোন প্রতিষেধক বা কার্যকরী ভ্যাকসিন বের হয়নি। তবে বিজ্ঞানী, ডাক্তারগণ এর প্রতিষেধক ও ভ্যাকসিন আবিষ্কারে নিরালশ চেষ্টা করে যাচ্ছেন।
আর একটি কথা- যারা ঈদ শপিংয়ের জন্য ছুটছেন, তারা একবার তাদের আশেপাশের অসহায় মানুষের দিকে তাকান। শপিংয়ের টাকা এবার না হয় তাদের সহযোগিতায় খরচ করলেন। অন্তত সেই সব দুস্থ অসহায় পরিবারের মুখের হাসিই হোক আপনার ঈদ-আনন্দ।
সবাই সুস্থ থাকুন, নিরাপদে থাকুন।
———————————————————————————————————————–
লেখক: সাংবাদিক

- Advertisement -
- Advertisement -