আজ বৃহস্পতিবার, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ ।   ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

করোনাভাইরাস: এক দিনে আরও ১ হাজার ৪১ আক্রান্ত, মৃত্যু বেড়ে ২৮৩

-Advertisement-

আরো খবর

- Advertisement -
- Advertisement -

::নিজস্ব প্রতিবেদক::
এক দিনে আরও ১ হাজার ৪১ জনের মধ্যে নতুন করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ায় দেশে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৮ হাজার ৮৬৩ জন। বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন আরও ১৪ জন । এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৮৩ জন হল। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত বুলেটিনে যুক্ত হয়ে অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা বৃহস্পতিবার দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির সবশেষ তথ্য তুলে ধরেন। গত এক দিনে মোট কতজন সুস্থ হয়েছেন সে তথ্য বুলেটিনে জানানো হয়নি। বুধবার পর্যন্ত মোট ৩ হাজার ৩৬১ জন সুস্থ হয়ে ওঠার কথা জানিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।
অধ্যাপক নাসিমা জানান, গত একদিনে যে ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে, তাদের মধ্যে তাদের মধ্যে ১১ জন পুরুষ, ৩ জন নারী। তাদের মধ্যে ৯ জন ছিলেন ঢাকা মহানগরীর বাসিন্দা, বাকিরা চট্টগ্রামের। এই ১৪ জনের মধ্যে ২ জনের বয়স ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে, ৫ জনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে, ৫ জনের বয়স ৪১ থেকে ৫০ বছরেরর মধ্যে, ১ জনের বয়স ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে এবং ১ জনের বয়স ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে।
বুলেটিনে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে নেওয়া হয়েছে আরও ২০১ জনকে, বর্তমানে সারা দেশে আইসোলেশনে রয়েছেন ২ হাজার ৫৭০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ৪১টি ল্যাবে ৭ হাজার ৩৯২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে বলেও বুলেটিনে তথ্য দেন অতিরিক্ত মহাপরিচালক। তিনি বলেন, বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম রোগীর খোঁজ মেলে গত ৮ মার্চ; সে বিবেচনায় করোনাভাইরাস সংক্রমণের দিক থেকে বাংলাদেশ এখন রয়েছে দশম সপ্তাহে। অষ্টম সপ্তাহ অর্থাৎ ২৬ এপ্রিল থেকে ২ মে পর্যন্ত সময়ে কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়েছিল ৩ হাজার ৭৯২ জনের মধ্যে। সে সপ্তাহে সুস্থ হয়েছিলেন ৬৪ জন, মারা গেছেন ৩৫ জন। নবম সপ্তাহ, অর্থাৎ ৩ মে থেকে ৯ মের মধ্যে শনাক্ত হয়েছিলেন ৪ হাজার ৯৮০ জন কোভিড-১৯ রোগী। সুস্থ হয়েছিলেন ২ হাজার ৩৩৭ জন, মারা গেছেন ৩৯ জন। ১০ মে থেকে শুরু হওয়া দশম সপ্তাহে এ পর্যন্ত ৭ হাজার ৯৩ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন। সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ১৮৯ জন, মারা গেছেন ৬৯ জন।

- Advertisement -
- Advertisement -