আজ শনিবার, ২৮ মার্চ ২০২০, ০৫:৫৭ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় মানিকগঞ্জে দুঃস্থদে র মধ্যে খাদ্য সহায়তা রাজধানীর তেজগাঁয়ে আকিজের অস্থায়ী হাসপাতাল ভেঙে দিয়েছে এলাকাবাসি গাইবান্ধায় আরও দুইজন করোনা আক্রান্ত সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতে দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে প্রশাসন, নিয়ম না মানায় জারিমানা সিএমপির ডোর টু ডোর শপ : কল করলেই চট্টগ্রামবাসীর ঘরে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য করোনা সচেতনতায় সুরক্ষারেখা চিহ্নিত করলেন ঘিওর ছাত্রলীগ সভাপতি জন দেশে নতুন ৫ করোনা রোগী শনাক্ত গণমাধ্যমে করোনাভাইরাস-গুজব সরকারের নজরদারিতে করোনা সচেতনতায় শিবালয় ছাত্রলীগের হাত ধোয়ার অস্থায়ী বুথ স্থাপনসহ বহুমুখী কর্মকাণ্ড করোনাভাইরাসে পুরুষের মৃত্যুঝুঁকি বেশি :  কারণে জানুন
ক্যাপ্টেন সেজে চাকরি দেয়ার নামে নাবিকের প্রতারণা

ক্যাপ্টেন সেজে চাকরি দেয়ার নামে নাবিকের প্রতারণা

নিজস্ব প্রতিবেদক।। নিজেকে জাহাজের ক্যাপ্টেন দাবি করে নাবিক পদে চাকরি দেয়ার নামে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন আরিফুল ইসলাম (৩৫) নামের এক ব্যক্তি। আরিফুল ইসলাম চীনা পতাকাবাহী জাহাজে সি-ম্যান পদে কর্মরত ছিলেন। চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণার একাধিক অভিযোগে তাকে চাকরিচ্যুত করে কর্তৃপক্ষ।

আরিফুল ইসলাম চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডু উপজেলার মুরাদপুর ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর ভাটেরখিল এলাকার নূর মোহাম্মদের ছেলে। সম্প্রতি রাজশাহীর তিন যুবককে চাকরি দেয়ার নামে ছয় লাখ ৬০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেন আরিফুল। এরপর থেকে তার হদিস পাচ্ছেন না ভুক্তভোগীরা। তাদেরই একজন রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলার জাহানাবাদ ইউনিয়নের চকবিরহী এলাকার মৃত মোবারক হোসেনের ছেলে সেকেন্দার আলী। টাকা ফেরত চেয়ে তিনি আরিফুল ইসলামকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন।

তার ভাষ্য, পানামার পতাকাবাহী এমভি ভিনসেন জাহাজে নাবিক পদে তাকে চাকরি দেয়া হয়েছিল। একইসঙ্গে চাকরি দেয়া হয়েছিল হুসাইন আলী ও হুমায়ুন আহমেদ নামে আরও দুজনকে। তাদের তিনজনের কাছ থেকে মোট ছয় লাখ ৬০ হাজার টাকা নিয়েছেন আরিফুল ইসলাম। কিন্তু তাদের তিনজনকে ধরিয়ে দেয়া হয় ভিয়েতনাম ভিত্তিক হাই ডং মেরিন অ্যান্ড শিপিং সার্ভিসের নিয়োগপত্র। গত ১ ফেব্রুয়ারি ভিয়েতনামে তাদের চাকরিতে যোগদানের কথা ছিল। ভিয়েতনামে যেতে দেয়া হয়েছিল বিমান টিকিটও। কিন্তু পরবর্তীতে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন, সবকিছুই ভুয়া।

অভিযোগ বিষয়ে জানতে কয়েক দফা আরিফুল ইসলামের মুঠোফোনে যোগাযোগ করেও সংযোগ পাওয়া যায়নি। প্রতারক আরিফ তার ঠিকানা সীতাকুণ্ডু উপজেলার মুরাদপুর ইউনিয়নের ২ ও ৪ নম্বর ওয়ার্ড এলাকায় বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগীদের। তবে এই নামে এলাকায় কেউ নেই বলে জানিয়েছেন ২ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য এজাহারুল ইসলাম ও ৪ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য আকবর হোসেন। একই ভাষ্য পরিষদ চেয়ারম্যান জাহেদ হোসেন নিজামিরও। বলেন, তার জানা মতে ওই এলাকায় এ নামে কেউ নেই। তবে তিনি বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থাও নেবেন।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2020 Alokito Protidin
Developed By Rudra Amin