বাউন্সারের আঘাতে হাসপাতালে করুনারত্নে

ক্রীড়া ডেস্ক: অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে আবার সে মরণ বাউন্সার। ফের মাথার পিছনের দিকে হেলমেটের নীচে চোট এবং ফের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া ব্যাটসম্যানকে। শনিবার ক্যানবেরায় শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে অস্ট্রেলিয়ার দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় দিন ফিরল ফিল হিউজ কাণ্ডের অভিশপ্ত স্মৃতি।

অজি পেসার প্যাট কামিন্সের বাউন্সার শ্রীলঙ্কার বাঁ-হাতি ওপেনার দিমুথ করুণারত্নের লেগেছিল ঘাড়ের ঠিক উপরে। সঙ্গে সঙ্গে লুটিয়ে পড়েন ৩০ বছর বয়সী। আম্পায়াররা তৎক্ষণাৎ চিকিৎসা ব্যবস্থার নির্দেশ দেন। স্ট্রেচারে শুইয়ে গাড়িতে করে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় মাঠের বাইরে। তারপর তাকে অ্যাম্বুলেন্সে করে নেওয়া হয় হাসপাতালে।

প্যাট কামিন্সের যে ডেলিভারি লেগেছিল করুণারত্নের হেলমেটের নীচে তার গতি ছিল ঘণ্টায় ১৪২ কি.মি.। সেই সময় ৮৪ বলে ৪৬ করে খেলছিলেন তিনি, যাতে ছিল পাঁচ বাউন্ডারি। শ্রীলঙ্কার রান ছিল বিনা উইকেটে ৮২। স্ট্রেচারে করে মাঠের বাইরে নিয়ে যাওয়ার সময়ও জ্ঞান হারিয়ে ফেলেননি করুণারত্নে। তিনি কথা বলতে থাকেন। হাতও নাড়াচ্ছিলেন।

স্টেডিয়ামে উপস্থিত দর্শকরা করুণারত্নেকে হাততালি দিয়ে দ্রুত সুস্থতার জন্য উৎসাহ দেন। জানা গেছে, তার চোট গুরুতর নয়। উদ্বেগের কোনও কারণ নেই বলেও জানানো হয়।

তবে এই ঘটনা ক্রিকেট মাঠে হিউজ কাণ্ডের স্মৃতিকে উসকে দিল। ২০১৪ সালের ২৫ নভেম্বর সিডনিতে শেফিল্ড শিল্ডের ম্যাচে শন অ্যাবটের বাউন্সারে চোট পেয়েছিলেন ফিলিপ হিউজ। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল তাকে। সেখানেই দুদিন পর ২৭ নভেম্বর মৃত্যু হয় তার। করুণারত্নেও হিউজের মতো ঘাড়ে হেলমেটের নীচে চোট পান বলেই আশঙ্কা বাড়ছিল।

আলোকিত প্রতিদিন/০২ ফেব্রুয়ারি/এমকে

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন