গাইবান্ধায় বিয়ের ৯ দিন পরেই নববধূর মরদেহ উদ্ধার

গাইবান্ধা সংবাদদাতা: শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার মুক্তিনগর থেকে চামেলী আক্তার (১৮) নামে এক নববধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মাত্র ৯ দিন আগে তার বিয়ে হয়েছিল। ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী পলাতক রয়েছে।

এলাকাবাসী জানান, গত ২৫ জানুয়ারি (শুক্রবার) পদুমশহর ইউনিয়নের টেপা পদুমশহর গ্রামের মোস্তফার মেয়ে চামেলী আক্তারের সঙ্গে মুক্তিনগর ইউনিয়নের হাট ভরতখালী গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে সুজন মিয়ার বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ের ৯ দিন পর আজ ভোরে সুজন মিয়া তার শ্বশুরবাড়ীতে ফোন করে স্ত্রীর অসুস্থতার কথা জানান। স্বজনরা সকালে মেয়ের শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে শোয়ার ঘরের খাটের ওপর চামেলির মরদেহ দেখে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে মরদেহটি উদ্ধার করে।

সাঘাটা থানা পুলিশের ওসি মোস্তাফিজার রহমান জানান, মরদেহের গলায় আঘাতের দাগ আছে। মরদেহটি গাইবান্ধা আধুনিক হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হচ্ছে। এটি হত্যা না আত্মহত্যা সেটি ময়নাতদন্ত শেষে জানা যাবে।

আলোকিত প্রতিদিন/০২ ফেব্রুয়ারি/এমকে

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন