শিশু নির্যাতন মামলার বাদীকে স্বপরিবারে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা

রাজশাহী সংবাদদাতা: রাজশাহীর পবা উপজেলায় শিশু নির্যাতন মামলার বাদীর বাড়িতে পেট্রোল ঢেলে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। হুমকি-ধামকির পর মামলা তুলে না নেওয়ায় মঙ্গলবার গভীর রাতে উপজেলার চৌবাড়িয়া গ্রামের ইমরান আলীর বাড়িতে আগুন জ্বালিয়ে দেওয়া হয়।

এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ঘরে থাকা ৫টি ছাগল, ২৫টি হাঁস ও মুরগি পুড়ে মারা গেছে। ছাগল উদ্ধার করতে গিয়ে দগ্ধ হয়েছেন বাড়ির মালিক ইমরান। তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

ইমরান আলীর অভিযোগ, ২০১৫ সালে তার শিশুপুত্র জাহিদ হাসানকে চুরির অপবাদ দিয়ে একই এলাকার রাকিব, নাসির, ফজলুসহ ১৩ জন মিলে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন করেছিল। এনিয়ে গণমাধ্যমে ওই সময় ঘটনাটি ব্যাপক আলোচনার সৃষ্টি করে। পরে জাহিদকে নির্যাতনের অভিযোগে তিনি বাদী হয়ে ১৩ জনকে আসামি করে পবা থানায় মামলা দায়ের করেন। ওই মামলাটি বিচারাধীন। কিন্তু মামলাটি তুলে নিতে আসামিরা তাকে চাপ দিয়ে আসছিল। বিভিন্নভাবে হুমকিও দেয় তারা।
ইমরান বলেন, ওই মামলা তুলে না নেওয়ায় মঙ্গলবার রাত আড়াইটার দিকে আসামিরা আমার বাড়িতে পেট্রোল ঢেলে আগুন দিয়ে স্বপরিবারকে হত্যার চেষ্টা করে। তবে আমরা প্রাণে বাঁচলেও পুড়ে গেছে ছাগাল ও হাঁস-মুরগি। ঘটনাটি পবা থানা পুলিশকে জানানো হয়েছে।

পবা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল হাসান বলেন, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় বাড়ির মালিক ইমরান দগ্ধ হয়েছেন। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আলোকিত প্রতিদিন/৩০ জানুয়ারি/এমকে

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন