সোনারগাঁয়ে বিয়ের প্রলোভনে তরুণীকে ধর্ষণ, ধর্ষক আটক

সোনারগাঁও (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও পৌরসভায় এক তরুনীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে ধর্ষক প্রেমিককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার সকালে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতের নাম অমল চন্দ্র দাস ওরফে নয়ন। সে কুমিল্লা জেলার বরুড়া উপজেলার সাহাপুর গ্রামের অনিল চন্দ্র দাসের ছেলে।

সোনারগাঁ থানায় দায়ের করা অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, মোবাইলে কথা বলার মাধ্যমে তরুণীর সাথে অমল চন্দ্র দাস ওরফে নয়নের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। নয়ন একটি বেসরকারি সংস্থায় চাকরি করতো। প্রায় সময়ই সে ওই তরুণীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বাসায় ডেকে এনে শারীরিক সর্ম্পক করতো। পরে তরুনী জানতে পারে নয়ন হিন্দু সম্প্রদায়ের। তাই সে তাকে মুসলিম হয়ে বিয়ে করার জন্য চাপ দেয়। গত শুক্রবার ছুটির দিন থাকায় আবারো ওই তরুনীকে তার অফিসে ডেকে এনে শারীরিক সর্ম্পক করার চেষ্টা করে তখন তার প্রেমিককে বিয়ের জন্য চাপ দেওয়া হলে জোরপূবর্ক ধর্ষণের চেষ্টা করার সময় তার আত্মচিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে অমল চন্দ্র দাস ওরফে নয়ন আটক করে পুলিশে সোর্পদ করে।

এব্যাপারে সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোরশেদ আলম জানান, এ ঘটনায় ধর্ষিতা তরুণী বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। ধর্ষক নয়নকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

আলোকিত প্রতিদিন/০৮ ডিসেম্বর/আরএ

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন