বাকীতে সিগারেট না দেয়ায় দোকানিকে হত্যা

আশুলিয়া প্রতিনিধি: বাকীতে সিগারেট না দেওয়ায় আশুলিয়ায় ইলিয়াস মৃধা নামের এক দোকানদারকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে মুরাদ নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে। এঘটনায় মুরাদকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে এলাকাবাসি। মুরাদ আশুলিয়া থানার কলতাসূতী এলাকার মৃত তোতা মিয়ার ছেলে। বৃহস্পতিবার বিকেলে আশুলিয়ার কলতাসূতী তালতলী এলাকায় হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহতের নাম ইলিয়াস মৃধা। সে নড়াইলের লোহাগড়া থানাধীন পারমল্লিকপুর গ্রামের মৃত. গোলাম রহমান মৃধার ছেলে। সে আশুলিয়ার কলতাসূতী তালতলী এলাকায় তার মেয়ের জামাতা ফরিদের বাড়িতে থেকে চায়ের দোকান চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতো।

নিহতের স্বজন ও পুলিশ জানান, স্থানীয় বখাটে মুরাদ মিয়া দোকানে গিয়ে বাকিতে সিগারেট চায়। কিন্তু ইলিয়াস মৃধা দিতে রাজি না হলে, উভয়ের মধ্যে বাক-বিতন্ডা হয়। একপর্যায়ে মুরাদ দোকানের পাশে থাকা লাঠি দিয়ে ইলিয়াসের মাথায় আঘাত করলে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে তাকে উদ্ধার করে সাভার এনাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনার পর এলাকাবাসি ঘাতক মুরাদকে আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে।

এব্যাপারে আশুলিয়া থানার (এস আই) সালাম হোসেন বলেন, ‘খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে নিহতের মরদেহটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। পরে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করা হয়েছে।’ এঘটনায় আশুলিয়া থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।

আলোকিত প্রতিদিন/০৭ ডিসেম্বর/আরএ

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন