রানা প্লাজা ধসের ৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে ব্লাস্ট এর উদ্যোগে দিনাজপুরে মাববন্ধন

দিনাজপুর সংবাদদাতা: “সবার জন্য নিরাপদ কর্মক্ষেত্র চাই, দূর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত সবার যথাযথ ক্ষতিপূরণ ও পূনর্বাসন চাই”- এই শ্লোগানকে সামনে রেখে আজ মঙ্গলবার বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড সার্ভিসেস ট্রাস্ট (ব্লাস্ট) দিনাজপুর ইউনিট আয়োজিত রানা প্লাজা ধ্বসের ৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে আনন্দ সাগর সংলগ্ন কাশীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রী এবং শিক্ষক-শিক্ষিকাদের নিয়ে আলোচনা সভা ও স্কুল গেট সম্মুখে পাকা সড়কে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়।

জীবিকার জন্য জীবন হারানো আর নয় শীর্ষক আলোচনা সভায় ব্লাস্ট দিনাজপুর ইউনিট এর সমন্বয়কারী এ্যাডঃ সিরাজুম মুনিরা’র সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: লোকমান হাকিম, সহকারী শিক্ষক মো: সৌরভ উদ্দিন, মো: আশরাফ আলী, মোছা: তামান্না বেগম, মোছা: নুরুন নাহার, মো: নজরুল ইসলাম, আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আলম, আলহাজ্ব নূরে আলম প্রমুখ।

রানা প্লাজার ভয়াবহ ঘটনা পর্যালোচনা করে বক্তব্য রাখেন ব্লাস্ট দিনাজপুর ইউনিটের স্টাফ’ল ইয়ার এ্যাডঃ পিনাক পানি রায়। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন ব্লাস্টের ফিন্যান্স এন্ড এডমিন অফিসার মো: মবিনুল ইসলাম বাবু।

এসময় বক্তারা বলেন, ২০১৩ সালের ২৪ এপ্রিল শতাব্দীর ভয়াবহ এই ট্র্যাজেডীতে নিহত হয়েছিল ১১৩৬ জন শ্রমিক, আহত হয়েছিল ১৭৬৯ জন। আমরা বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষরা গভীর শ্রদ্ধা ও মর্মবেদনা নিয়ে স্মরণ করছি নিহত ও নিখোঁজ শ্রমিকদের। আমরা ক্ষতিগ্রস্থ শ্রমিক ও তাদের পরিবারের স্থায়ী পূনর্বাসন, আহতদের দীর্ঘ মেয়াদী চিকিৎসা ও মানষিক ট্রমা থেকে মুক্ত করার জন্য আরো সহযোগিতার দাবী জানাচ্ছি।

আইএলও কনভেনশন ১২১এবং তারাত্মক দূর্ঘটনা আইন ১৮৫৫-এর ভিত্তিতে শ্রমিকদের পর্যাপ্ত ক্ষতিপূরণ প্রদান করার লক্ষ্যে একটি জাতীয় মানদন্ড তৈরী করতে হবে। নিরাপদ কর্মস্থল নিশ্চিত করতে পরিদর্শন ব্যবস্থাকে জোরদার করতে হবে। তাদের জন্য হাসপাতালে বিশেষ ইউনিট ও শ্রমিকদের বীমার আওতায় আনার উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। কর্মক্ষেত্রে সকল দূর্ঘটনার সুস্থ্য তদন্ত ও জড়িত দায়ীদের দ্রুত বিচার নিশ্চিত করতে হবে। শ্রমিকদের নিরাপত্তা সংক্রান্ত জাতীয় সংস্কৃতি গড়ে তোলার উদ্যোগ নিতে হবে।

 

আলোকিত প্রতিদিন/২৪ এপ্রিল/আরএইচ

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন