বগুড়ায লবণ নিয়ে গুজব, ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান | আলোকিত প্রতিদিন

বগুড়ায লবণ নিয়ে গুজব, ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান

জিএম মিজান, বগুড়াঃ বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলায় লবণের দাম বেড়েছে এমন গুজব ছড়িয়ে বেশি দামে লবণ বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। পেঁয়াজের মত লবণের দামও বেড়ে যাচ্ছে এমন গুজব ছড়িয়ে পড়লে সাধারণ জনগণও লবণ কিনতে হুমড়ি খেয়ে পড়েন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে নন্দীগ্রাম উপজেলার বিভিন্নস্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত পৌরশহর ছাড়াও উপজেলার বিভিন্ন হাটবাজারে ভ্রাম্যমাণ অভিযান পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) শারমিন আখতার। তিনি ব্যবসায়ীদের গোডাউন তল­াশি ছাড়াও দোকান গুলোতে লবণের খুচরা ও পাইকারি ম‚ল্য তালিকা ঝুলানোর নির্দেশনা দেন। জানা যায় মঙ্গলবার সকাল থেকে লোকমুখে লবণের ম‚ল্য বেড়ে যাওয়ার গুজব ছড়িয়ে পড়ে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে নন্দীগ্রাম, রণবাঘা, পন্ডিতপুকুর, হাটকড়ইসহ বিভিন্ন এলাকায় অতিরিক্ত দামে লবণ বিক্রি শুরু হয়। লোকজন অতিরিক্ত লবণ কিনতে শুরু করেন। অনেক আবার মজুদ করার উদ্দেশ্যে লবণ বিক্রি বন্ধ করে দেন। দুপুরের মধ্যে পুরো উপজেলা জুড়ে গুজব ছড়িয়ে পড়লে ব্যবসায়ীরা খুচরা ও পাইকারি বাজারে লবণের দাম বৃদ্ধি করে দেন। নন্দীগ্রাম পৌর শহরের পাইকারি ব্যবসায়ী শহিদুল ইসলাম বলেন, লবণের দাম বাড়ার গুজবে ক্রেতারা হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন। একেকজন ২ থেকে ১০ বস্তা লবণ কিনছেন। তিনি সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ৬০০ বস্তা লবণ বিক্রি করেছেন। লবণ কিনতে আসা সাজেদুর রহমান বলেন, লোকের মুখে শুনেছি লবণের দাম বেড়েছে। বুধবার থেকে আরো কয়েকগুণ বাড়তে পারে-এই আশঙ্কায় আজকে অনেকে লবণ কিনে রাখছেন। পেঁয়াজের মতো লবণ সংকট দেখা দিতে পারে বলে তারা শুনেছেন। কিন্তু কার কাছে শুনেছে তা কেউ বলতে পারেন না। উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোছাঃ শারমিন আখতার এ প্রতিবেদক-কে বলেন, বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ীর গুদামে অভিযান চালানো হয়েছে। এছাড়া প্রতিটি বাজার মনিটরিং করা হচ্ছে। দোকান গুলোতে লবণের মূল্য তালিকা ঝুলানোর নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

 

 

 

আলোকিত প্রতিদিন/১৯ নভেম্বর/আসাদ

এই সংবাদ ৩৫ বার পঠিত।
ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন