ওদের এখন বোঝাতে হবে, টেস্ট কিভাবে খেলতে হয়? খেপেছেন পাপন

 

নিজস্ব প্রতিকবদক : বাংলাদেশ দল ঘরের মাঠে টেস্টে এমন খেলছে? সেটাও আবারও ক্রিকেটের নবীশ দল আফগানিস্তানের বিপক্ষে? বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের যেন বিশ্বাসই হচ্ছে না। সাকিব-মুশফিক-রিয়াদদের ব্যাটিং দেখে রীতিমত খেপেছেন তিনি। বাংলাদেশ টেস্ট মর্যাদা পেয়েছে ২০০০ সালে। এ নিয়ে খেলছে ১১৫ টেস্ট, এই দলটিই হারের মুখে মাত্র তৃতীয় টেস্ট খেলতে নামা আফগানিস্তানের বিপক্ষে।

দলের এমন পারফরম্যান্স দেখে ভীষণ খেপেছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। দেশের বাইরে যাওয়ার সিডিউল ছিল তার, সেটিও বাদ দেয়ার চিন্তা করছেন। পাপন কিছুতেই মানতে পারছেন না, টেস্টে একটা দল কিভাবে এমন খেলে। তার ভাষায়, ‘এটা টেস্ট। আমাকে যদি জিজ্ঞাসা করেন, আজকে দেখে মনে হয়নি এটা বাংলাদেশ। প্রথম কথা হচ্ছে যে, খুবই দুঃখজনক, খুবই খারাপ। আমি পরশু রাত্রে এসেছিলাম, কালকে সকালেই আমার ফ্লাইট ধরার কথা। কিন্তু এই প্ল্যান স্ট্র্যাটেজি দেখে আমি এতই হতাশ যে আমি যাওয়ার চিন্তাই বাদ দিয়ে দিয়েছি। যেটা শুরু হয়ে গেছে সেটা নিয়ে কথা বলে আর লাভ নেই। সামনে টি-টোয়েন্টি আছে, তখন থেকে নতুন করে আমাদের চিন্তা করতে হবে। আফগানিস্তান ভালো খেলছে, সেটা মানছেন পাপন। কিন্তু বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের বিশেষ করে ব্যাটসম্যানদের দায়িত্বজ্ঞানহীনতা দেখে হতাশ বিসিবি সভাপতি। তিনি বলেন, ‘পারফরম্যান্সের কথা যদি বলেন তাহলে আমি অবশ্যই বলবো, কৃতিত্ব অবশ্যই আফগানিস্তানের। কারণ তারা টেস্টের মতো করে ব্যাট করেছে। তাদের একজন সেঞ্চুরি করেছে, অন্যরা আশি নব্বই করে রান করেছে। আমাদের অন্য সব বাদ দিলাম; সাকিব, মুশফিক, রিয়াদরা যদি পঞ্চাশও করতে না পারে, তাহলে আমাদের ওই ম্যাচ জেতার কোনো সম্ভাবনা নাই। (ব্যাটসম্যানদের দেখে) আমার মনেই হয়নি যে, এটা একটা টেস্ট হচ্ছে। টেস্টে এত বছর খেলার পর কি মুমিনুল, রিয়াদদের মতো ব্যাটসম্যানদের আলাদা করে খেলা শেখাতে হবে? এমন প্রশ্ন পাপনের, ‘প্রথম ইনিংস যদি আপনি দেখেন, সেট হয়ে যাওয়ার পর লিটন দাস যে শটটা খেললো! মুমিনুল পঞ্চাশ করার পর কই একশ দেড়শো করবে, সে হলো টেস্ট স্পেশালিস্ট, সে যে শটটা খেললো! রিয়াদ যে শটটা খেললো, তাকে টেস্ট খেলা বলে না। ওদেরকে এখন কি বোঝাতে হবে, টেস্ট কিভাবে খেলতে হয়! ওরা (আফগানিস্তান) যদি ৩৭০ রান করে তাহলে বাংলাদেশ যে দল, তাতে আমাদের ৫০০ করা উচিত। এটা মোটামুটি ব্যাটিং উইকেট ছিল, এখানে না পারার কোনো কারণ নেই।

 

আলোকিত প্রতিদিন/সেপ্টেম্বর/০৮/ এস এম

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন