রাজাপুরে ১৩ বছরের এক মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষনের শিকার

কামরুল হাসান মুরাদ: ঝালকাঠি জেলায় রাজাপুর উপজেলার উত্তর পশ্চিম লেবুবুনিয়া দাখিল মাদ্রাসায় পড়ুয়া অষ্টম শ্রেনীর ১৩ বছরের এক ছাত্রী ধর্ষনের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার (১৩ মে) সকাল ৮টায় উপজেলার সাতুরিয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা এ ঘটনায় নুর আলম ও রাকিবকে আটক করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহাগ হাওলাদারের কাছে হস্থান্তর করেন। পরে নির্বাহী কর্মকর্তা দুজনকেই রাজাপুর থানা পুলিশে সোপর্দ করেন। নুর আলম উপজেলার নৈকাঠি গ্রামের আফছের কাগজীর ছেলে।

রাকিব উপজেলার সাতুরিয়া এলাকার মাহে আলম হাওলাদারের ছেলে। ধর্ষনের শিকার ঐ ছাত্রী জানায়, মাদ্রাসায় যাওয়া আসার পথে তাকে প্রায়ই কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল বখাটেরা। ঘটনার দিন সোমবার (১৩ মে) সকাল ৮টায় প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার পথে তার বান্ধবী মিম আক্তারের বাসায় একটি বই দিয়ে ফেরার পথে বখাটে নুর আলম ও রাকিব তার মুখে রুমাল চেপে ধরে এবং তাকে নুর আলমের খালি ঘরে নিয়ে যায়। ঘরের মধ্যে রেখে তার পোশাক খুলে ফেলে নুর আলম ও রাকিব দুজনেই তাকে পালাক্রমে ধর্ষন করে।

এ সময় ঐ ছাত্রী অচেতন হয়ে পড়ে। পরে জ্ঞান ফিরলে ঐ মাদ্রাস ছাত্রী কৌশলে ঐ স্থান থেকে পালিয়ে আসে এবং স্থানীয়দের কাছে ঘটনাটি জানায়। ঘটনার পর পর স্থানীয়রা নুর আলমকে আটক করতে সখম হয়, আর এ দিকে রাকিব পালিয়ে গেলেও স্থানীয়রা আবার তাকে আটক করে। বখাটেদের আটক করে নির্বাহী কর্মকর্তা কাছে হস্থান্তর করেন।

এ ব্যাপারে রাজাপুর থানা অফিসার ইনচার্জ জাহিদ হোসেন জানান, ঐ ছাত্রীর বাবা রাজ্জাক খলিফা বাদী হয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছে এবং এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে। মামলা রুজু করে ঐ ছাত্রীকে ডাক্তারী পরিক্ষা সম্পর্ন্ন করা হবে।

আলোকিত প্রতিদিন/১৪ মে/আরএ

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন