‘হুমকির মুখে’ আইয়ুব বাচ্চুর পরিবার

বিনোদন ডেস্ক: আইয়ুব বাচ্চুর স্ত্রী আর তাঁর মেয়েকে নাকি হত্যার হুমকি দেওয়া হচ্ছে, এমনটাই দাবি করেছেন ছেলে আহনাফ তাজওয়ার আইয়ুব। তিনি এখন আছেন কানাডায়। পড়াশোনা করছেন ইউনিভার্সিটি অব ব্রিটিশ কলাম্বিয়ায়। সেখান থেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে আজ মঙ্গলবার দুপুরে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। তিনি আরও লিখেছেন, ‘আমার বাবা আমার ব্যক্তিগত সম্পত্তি নন। তিনি আমার বোনেরও ব্যক্তিগত সম্পত্তি নন। তিনি বাংলাদেশের জাতীয় সম্পদ। ছিলেন, আছেন এবং থাকবেন। তাঁর গানগুলোর ভেতর দিয়ে তিনি মানুষের হৃদয়ে বেঁচে থাকবেন।’

এলআরবি নামটি আর কেউ ব্যবহার করতে পারবে না—এলআরবির প্রধান প্রয়াত ব্যান্ড তারকা আইয়ুব বাচ্চুর পরিবারের এই আপত্তির মুখে ব্যান্ডটির নাম পরিবর্তন করেছেন সদস্যরা। নতুন নাম হয়েছে ‘বালাম অ্যান্ড দ্য লিগ্যাসি’। এই ব্যান্ডের অন্যতম সদস্য মাসুদ গতকাল সোমবার প্রথম আলোকে বলেন, ‘এলআরবির প্রাণপুরুষ আইয়ুব বাচ্চুর প্রতি পূর্ণ শ্রদ্ধা আর সম্মান রেখে তাঁর স্মৃতিকে অম্লান রাখতে, আমাদের সবার প্রিয় ব্যান্ডকে বাঁচিয়ে রাখতে এই উদ্যোগ নিয়েছি।’

এদিকে এলআরবির নাম পরিবর্তনের পর তা ভক্তদের মধ্যে বিরূপ প্রভাব ফেলেছে। অনেকেই আইয়ুব বাচ্চুর হাতে গড়া দেশের অন্যতম জনপ্রিয় এই ব্যান্ডের মৃত্যু মেনে নিতে পারছেন না। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে অনেকেই সমালোচনা করছেন, সিদ্ধান্তটি আবারও বিবেচনার জন্য আইয়ুব বাচ্চুর পরিবার আর বালাম অ্যান্ড দ্য লিগ্যাসি ব্যান্ডের সদস্যদের অনুরোধ করেছেন। কেউ কেউ এতটাই কষ্ট পেয়েছেন যে যাঁরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তাঁদের নানা ধরনের হুমকি দিয়েছেন। আহনাফ তাজওয়ার লিখেছেন, ‘আমি এ রকম এক হাজার মন্তব্য পড়েছি, যেখানে বলা হয়েছে, আমার বাবা আমার ব্যক্তিগত সম্পত্তি নন, তিনি জাতীয় সম্পদ।’ তিনি আরও লিখেছেন, ‘কিন্তু দিন শেষে তিনি আমার বাবা।’

যাঁরা আইয়ুব বাচ্চুর পরিবারকে সমালোচনা করছেন, তাঁদের জন্য আহনাফ তাজওয়ার আইয়ুব লিখেছেন, ‘আমার শুভকামনা তাঁদের জন্য, যাঁরা আমার মা, বোন আর আমাকে প্রতিনিয়ত গালমন্দ করে আনন্দ পাচ্ছেন। আপনাদের অভিশাপে কিছু আসে যায় না। আমাদের কষ্ট, আমাদের পাশে আজ বাবা নেই।’

বাবাকে স্মরণ করে আহনাফ তাজওয়ার আইয়ুব লিখেছেন, ‘বাবার মৃত্যুর সঙ্গে সঙ্গে আমার কাছে এলআরবিরও মৃত্যু ঘটেছে। কিন্তু তার মানে এই না যে বাবার গানগুলো শেষ হয়ে যাবে। আমি কিন্তু তা বলছি না।’

আহনাফ তাজওয়ার আইয়ুব এলআরবির সঙ্গে যুক্ত হতে চান? তিনি লিখেছেন, ‘যদি আপনারা ভেবে থাকেন, আমার উদ্দেশ্য আমার বাবার স্থান নেওয়া, তাহলে ভুল করছেন। আমার বাবা যে মাপের মানুষ ছিলেন, আমি যদি তাঁর ১০০ ভাগের এক ভাগও হতে পারতাম, তাহলে নিজেকে নিয়ে গর্ব করতাম। আর শিল্পী বাবার কথা বাদ দিচ্ছি। আমি কোনো দিন তাঁর জায়গা নিতে পারব না।’

সম্প্রতি প্রয়াত আইয়ুব বাচ্চুর ফেসবুক প্রোফাইল হ্যাক করা হয়। আহনাফ তাজওয়ার আইয়ুব অভিযোগ করে বলেন, যাঁরা এই কাজটি করেছেন, অবশ্যই তাঁরা কোনো খারাপ উদ্দেশ্য নিয়ে কাজটি করেছেন। সেখানে সন্তানদের প্রতি আইয়ুব বাচ্চুর দেওয়া অনেকগুলো ভয়েস মেসেজ আছে। বাবার মৃত্যুর পর প্রতিদিন ঘুমাতে যাওয়ার আগে সেই ভয়েস মেসেজগুলো শোনা হতো। আহনাফ তাজওয়ার আইয়ুব লিখেছেন, ‘বাবার কণ্ঠ শোনার একমাত্র উপায় তাঁরা বন্ধ করে দিয়েছেন।’

আলোকিত প্রতিদিন/১৬ এপ্রিল/এমএ

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন