পাকিস্তানের বিমান ভূপাতিত করেনি ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: গত ফেব্রুয়ারিতে কাশ্মীরে হামলার পর ভারত যে পাকিস্তানের বিমান ভূপাতিত করার দাবি করেছিল তার কোনো সত্যতা নেই বলে জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম ফরেন পলিসি। যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা কর্মকর্তাদের নাম পরিচয় গোপন রেখে তাদের উদ্ধৃতি দিয়ে সংবাদমাধ্যমটি এক প্রতিবেদনে চাঞ্চল্যকর এ তথ্য জানিয়েছে।

বৃহস্পতিবার ফরেন পলিসিতে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ‌‘এ ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট দুজন মার্কিন প্রতিরক্ষা কর্মকর্তা তাদেরকে জানিয়েছে, সম্প্রতি তারা ইসলামাবাদে পাকিস্তানের কাছে থাকা এফ-১৬ বিমান গণনা করে দেখেছে দেশটির কোনো এফ-১৬ বিমান খোয়া যায়নি।’

গত ২৬ ফেব্রুয়ারি ভারতীয় বিমানবাহিনী পাকিস্তানে ঢুকে হামলা করে। তারপর ২৭ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানও পাল্টা প্রতিরোধের অংশ হিসেবে ভারতে বিমান হামলা চালায়। ভারত সরকার সে সময় দাবি করেছিল, তারা পাকিস্তানের একটি এফ-১৬ যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করেছে।

পাকিস্তান সেনাবাহিনী ভারতের বিমান ভূপাতিত করে পাইলটি অভিনন্দন বর্তমানকে আটক করে। অবশ্য তার দুদিন পর পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের ‘শান্তি প্রতিষ্ঠার নিদর্শন’ হিসেবে পাইলট অভিনন্দনকে ভারতের কাছে হস্তান্তর করা হলে দেশ দুটির মধ্যে তৈরি হওয়া যুদ্ধ পরিস্থিতি শান্ত হয়।

ভারতীয় বিমানবাহিনী ২৮ ফেব্রুয়ারি গণমাধ্যমের সামনে অ্যাডভান্সড মিডিয়াম রেঞ্জ এয়ার টু এয়ার মিসাইলের ধ্বংসাবশেষ হাজির করে দাবি করে তারা যে পাকিস্তানের এফ-১৬ ভূপাতিত করেছে এটা তারই প্রমাণ। কিন্তু পাকিস্তান ভারতের এমন দাবি প্রথম থেকেই অস্বীকার করে আসছিল।

ফরেন পলিসির প্রতিবেদন অনুযায়ী, ভারতের এমন দাবির পর পাকিস্তানের পক্ষ থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে আনুষ্ঠানিকভাবে আমন্ত্রণ জানানো হয় তারা যেন ইসলামাবাদে এসে এফ-১৬ বিমান গণনা করে যায়। কেননা যুক্তরাষ্ট্রই সন্ত্রাসবাদ দমনের অংশ হিসেবে পাকিস্তানকে এফ-১৬ যুদ্ধবিমানগুলো দিয়েছিল।

ফরেন পলিসির মার্কিন প্রতিরক্ষা সদর দফতর পেন্টাগন বিষয়ক প্রতিবেদক লারা সেলিংম্যান বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র এফ-১৬ যুদ্ধবিমান গণনার জন পাকিস্তানে যায়। তারা ইসলামাদে গিয়ে দেখতে পায় হিসাব অনুযায়ী নির্দিষ্ট সংখ্যার এফ-১৬ পাকিস্তানের বহরে আছে যা ভারতের দাবিকে মিথ্যা বলে প্রমাণিত করে।’

মার্কিন প্রতিরক্ষা সদর দফতরের ঊর্ধ্বতন একজন কর্মকর্তাও এই তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র গণনা শেষ করেছে এবং পাকিস্তানের বহরে যতগুলো এফ-১৬ থাকার কথা ছিল তাই পাওয়া গেছে।’ এর বেশি কিছু আরা জানাননি যুক্তরাষ্ট্রের ওই প্রতিরক্ষা কর্মকর্তা।

এমন এক সময়ে চাঞ্চল্যকর ওই প্রতিবেদন প্রকাশ করল ফরেন পলিসি যার কয়েকদিন পর ভারতের জাতীয় নির্বাচনের ভোট শুরু হবে। ক্ষমতাসীন মোদির নেতৃত্বাধীন ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) সেই অভিযানের কৃতিত্ব নিয়ে ভারতের নাগরিকদের জাতীয়তাবাদী চেতনা কাজে লাগিয়ে নির্বাচনে জেতার চেষ্টা করছে।

আলোকিত প্রতিদিন/০৬ এপ্রিল/আরএ

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন