গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর হাতে অনিয়ম ধরা পড়া সেই দুই সহকারী শিক্ষিকা সাময়িক বহিস্কার

সেনানিবাস ও তেজগাঁও থানা প্রাথমিক কর্মকর্তা ও সহকারী কর্মকর্তাকে ৩ দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর নোটিশ

তুষার আহসান: অনিয়মের পর্দায় ঢাকা সেই দুই সহকারী শিক্ষিকাকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে ঢাকা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা। একই সাথে মিরপুর সেনানিবাস ও তেজগাঁও থানা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এবং ওই দুই স্কুল সংশ্লিষ্ট ক্লাস্টারের দায়িত্বে থাকা ২ সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে কারণ দর্শাতে নোটিশ জারি করেছেন তিনি। শনিবার প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর মো. জাকির হোসেনের ঝটিকা পরিদর্শনে ইব্রাহিমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও নাখালপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দুই শিক্ষিক্ষার বিরুদ্ধে অনিয়ম ধরা পড়লে এমনটাই নির্দেশ দেন প্রতিমন্ত্রী।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, প্রাথমিক শিক্ষা সপ্তাহ উপলক্ষে প্রকাশ হতে চলা ‘স্মরণিকা উপ-কমিটি’র সদস্য নির্বাচিত হন ইব্রাহিমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা আফরোজা পারভীন। তারপর থেকেই তিনি একটানা বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত। এদিকে, নাখালপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের স্ত্রী রীতা রানী সরকার দীর্ঘ ৩ বছর যাবৎ ওই বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত। প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন শনিবার এসব অনিয়ম হাতে-নাতে ধরে সাময়িক বহিষ্কারের নির্দেশ দেন। একই নির্দেশে ওই স্কুল সংশ্লিষ্ট থানা শিক্ষা কর্মকর্তা ও সহকারী থানা শিক্ষা কর্মকর্তাকে কারণ দর্শাতে বলা হয়। সেই মোতাবেক গতকাল অপরাধী শিক্ষিকাদের সাময়িক বহিষ্কার ও কর্মকর্তাদেরকে ৩ কর্মদিবসের মধ্যে কারণ দর্শাতে নোটিশ জারি করা হয়েছে।

ঢাকা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আলেয়া ফেরদৌসী শিখা জানান, ‘মাননীয় প্রতিমন্ত্রী মহোদয়ের নির্দেশে সকল ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।’ সাময়িক বহিষ্কার দুই সহকারী শিক্ষিকার বিষয়ে পরবর্তীতে কী ব্যবস্থা নেয়া হতে পারে সে প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘জেলা পর্যায়ে আমাদের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এরপর বিভাগী মামলা পারে।’ এমন সব অনিয়ম থাকলেও এতোদিন খুঁজে না পাওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমরা সতর্ক হচ্ছি। মনিটরিং সেল শক্ত করা হচ্ছে। আগামীতে যেনো আর কোন আশ্রয় বা প্রশ্রয়ের ঘটনা না ঘটে, সেদিকে আমাদের তীক্ষ নজর থাকবে।’

আলোকিত প্রতিদিন/১০ মার্চ/আরএইচ

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন