প্রচন্ড শীতে রোটা ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে গাইবান্ধার শিশুরা

গাইবান্ধা সংবাদাদাতা: গাইবান্ধায় প্রচন্ড শীতের প্রকোপে দেখা দিয়েছে ডায়রিয়াসহ শীতজনিত বিভিন্ন রোগ। প্রচন্ড ঠান্ডা ও রোটা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার কারণে ঝুঁকিতে পড়েছে এজেলার শিশুরা। গত কয়েক সপ্তাহে গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে ডায়রিয়া আক্রান্ত হয়ে ৬শতাধিক শিশু চিকিৎসা নিয়েছে। অতিরিক্ত রোগীর চাপে হিমশিম খেতে হচ্ছে চিকিৎসকদের।

গাইবান্ধা সদর হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রতিদিন শিশু ডায়রিয়া, নিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্টসহ ঠান্ডজনিত রোগে আক্রান্তদের নিয়ে জেলা হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ছুটে আসছেন অভিভাবকরা। বেড না পেয়ে মেঝেতেই চিকিৎসা নিচ্ছেন রোগিরা। চিকিৎসা নিতে শিশুদেরকে নিয়ে সিঁড়িতে রাত কাটাচ্ছে অনেকেই। গত ২৪ ঘন্টায় ৪৫জন শিশু ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। একই অবস্থা পরিলক্ষিত হয়েছে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ, ফুলছড়ি, গোবিন্দগঞ্জ, সাদুল্লাপুর, পলাশবাড়ী ও সাঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোতে। গাইবান্ধা সদর হাসপাতালের শিশু বিশেষজ্ঞ ডা. আবুল আজাদ মন্ডল বলেন, ‘বেশিরভাগ শিশু রোটা ভাইরাসের মাধ্যমে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে। এছাড়াও শীতজনিত নিউমোনিয়া ও শ্বাসকষ্টসহ নিয়ে শিশুরা হাসপাতালে আসছে। তাদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হচ্ছে।’

গাইবান্ধা সদর হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত তত্ত¡াবধায়ক ডা. আসাদুজ্জামান বলেন, ‘ডায়রিয়ায় আক্রান্ত প্রতিদিন ৪৫/৫০জন শিশু হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে। এছাড়াও বহিঃবিভাগে ৪০ থেকে ৫০ জন চিকিৎসা নিচ্ছে। হাসপাতাল থেকে পর্যাপ্ত ওষুধ ও স্যালাইন দেয়া হচ্ছে। এই রোগ থেকে শিশুদের রক্ষায় অভিভাবকদের সচেতন করা হচ্ছে।’

আলোকিত প্রতিদিন/১৪ জানুয়ারি/আরএইচ

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন