সৌদিতে বন্যায় ৩০ জন নিহত

আকস্মিক বন্যায় সৌদি আরবের বিভিন্ন অঞ্চলে অন্তত ৩০ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। গত কয়েকদিনে বন্যায় এ প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে বলে সৌদি সিভিল ডিফেন্স জানিয়েছে।

এক বিবৃতিতে সৌদি সিভিল ডিফেন্স বলছে, বন্যা ও বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে মানুষের প্রাণহানির সংখ্যা ৩০ জনে পৌঁছেছে। এছাড়া অন্তত ১ হাজার ৪৮০ জনকে বন্যা কবলিত এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে; যাদের অধিকাংশই রাজধানী রিয়াদের বাসিন্দা।

আমিরাতের সংবাদমাধ্যম দ্য ন্যাশনাল বলছে, বন্যায় ও বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে মক্কায় ১০, আল বাহায় ৫, আসিরে ৩, পূর্বাঞ্চলীয় একটি শহরে ৩, হায়েল, জাজান, তাবুক, আল-জাউফ ও নাজরান এবং রিয়াদে যথাক্রমে একজনের করে প্রাণহানি ঘটেছে।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়েছে, এছাড়াও বন্যা কবলিত অন্যান্য এলাকা থেকে আরো ৩ হাজার ৮৬৫ জনকে অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হয়েছে। এদের মধ্যে ২০০১ জনকে বন্যা আশ্রয়কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে। ভারী বর্ষণের শঙ্কায় দেশটির নাগরিকদের সতর্কতার সঙ্গে চলাচলের পরামর্শ দিয়েছে রিয়াদের আবহাওয়া অধিদফতর।

অন্যদিকে, গত কয়েকদিন ধরে টানা বর্ষণ ও বন্যায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে মধ্যপ্রাচ্যের অপর দেশ কুয়েত। স্কুল, কলেজ বন্ধের পাশাপাশি বৃহস্পতিবার কুয়েত থেকে বিমানের আন্তর্জাতিক সব ফ্লাইটের উড্ডয়ন ও অবতরণ সাময়িকভাবে বাতিল করা হয়েছে।

কুয়েতের রাষ্ট্রীয় সংবাদসংস্থা কুনা বলছে, কুয়েতগামী সব আন্তর্জাতিক ফ্লাইট সাময়িকভাবে সৌদির আরবের পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ দাম্মাম ও বাহরাইনের রাজধানী মানামায় অবতরণের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। দেশজুড়ে ভয়াবহ বন্যায় নাগরিক ভোগান্তি নিরসনে ব্যর্থতার দায় নিয়ে দেশটির দু’জন মন্ত্রী পদত্যাগ করেছেন।

আলোকিত প্রতিদিন/১৫নভেম্বর/আরএইচ

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন