শ্রীলঙ্কার পার্লামেন্টে এমপিদের হাতাহাতি, তীব্র হচ্ছে সংকট

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসের বিরুদ্ধে অনাস্থা ভোটের একদিন পরেই শ্রীলঙ্কার পার্লামেন্টে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েছেন এমপিরা। বৃহস্পতিবার রাজাপাকসের সমর্থক এমপিরা সংঘর্ষে জড়ান রনিল বিক্রমসিংহের এমপিদের সঙ্গে।

পার্লামেন্টের স্পিকার কারু জয়সুরিয়া বৃহস্পতিবার ঘোষণা করেন, শ্রীলঙ্কার এখন কোনও প্রধানমন্ত্রী বা মন্ত্রিসভা নেই। বুধবার অনাস্থা ভোটে হেরে যান মাহিন্দা রাজাপাকসে। স্পিকার কণ্ঠভোট গ্রহণের সময় রাজাপাকসের সমর্থকরা চিৎকার ও স্লোগান দেন। এরপরই পার্লামেন্টে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা শুরু হয়।

রাজাপাকসে পার্লামেন্টে দেওয়া ভাষণে স্পিকারের এই পদক্ষেপকে প্রত্যাখ্যান করেছেন। তিনি সাধারণ নির্বাচনের প্রস্তাব সমর্থন করতে এমপিদের প্রতি আহ্বান জানান। এরপরই তার সমর্থক এমপিরা প্রতিদ্বন্দ্বি দলের এমপিদের সঙ্গে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েন। অনেকে স্পিকারের দিকে পানির বোতল ছুড়ে মারেন।

শ্রীলঙ্কার এই রাজনৈতিক সংকটের শুরু হয় ২৬ অক্টোবর। ওই দিন প্রেসিডেন্ট মৈত্রিপালা সিরিসেনা প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমসিংহকে বরখাস্ত করে রাজাপাকসেকে স্থলাভিষিক্ত করেন। পরদিনই পার্লামেন্ট অধিবেশন স্থগিত করেন। আন্তর্জাতিক চাপের মুখের গত সোমবার পার্লামেন্টের অধিবেশন শুরু হয়। কিন্তু যখন প্রতীয়মান হয় যে, রাজাপাকসে পার্লামেন্টে অনাস্থা ভোটে জয়ী হতে পারবেন না তখন সিরিসেনা পার্লামেন্ট ভেঙে দেন এবং আগাম নির্বাচনের ঘোষণা দেন। মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্ট প্রেসিডেন্টের এই সিদ্ধান্তকে বাতিল করে দেয়।

আলোকিত প্রতিদিন/১৫ নভেম্বর/এমকে

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন