দু-তিন মাসের জন্য ছিটকে গেলেন তামিম

ক্রীড়া ডেস্ক: তামিম ইকবাল ব্যাট হাতে নামবেন, এটা দলের অনেকের জন্যই অভাবিত ছিল। ব্যাটিং করার সময় চোট পেয়ে তাঁকে নিয়ে হাসপাতালে ছুটতে হয়েছিল দলের ম্যানেজার খালেদ মাহমুদকে। তখনই ধারণা করা হচ্ছিল, তামিম অন্তত দেড় কি দুই মাসের জন্য ছিটকে গেলেন। সেই চোট নিয়েই তামিম খেলতে নেমেছিলেন

এশিয়া কাপ খেলতে গিয়েছিলেন ডান হাতের আঙুলে চোট নিয়ে। প্রথম ম্যাচের আগ পর্যন্ত ছিল শঙ্কার দোলাচল—খেলবেন তো তামিম ইকবাল? শেষ পর্যন্ত খেললেন এবং প্রথম ম্যাচেই শেষ হয়ে গেল তাঁর এশিয়া কাপ।

ম্যাচের দ্বিতীয় ওভারের শেষ বলে সুরঙ্গা লাকমলের বাউন্সারে পুল করতে গিয়েছিলেন। বল এসে লাগল তামিমের বাঁ হাতের কবজিতে। মাঠ থেকে সোজা নিয়ে যাওয়া হলো হাসপাতালে। জানা গেল, তামিম ইকবালের হাড়ে চিড় ধরেছে। এশিয়া কাপ শেষ বাংলাদেশ ওপেনারের।

জাতীয় দলের ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ অবশ্য প্রথমে ফোনে জানিয়েছিলেন, তামিমের চোটের উন্নতির জন্য অপেক্ষা করা হবে। তবে কাল আর তামিম মাঠে নামবেন না বলে নিশ্চিত করে দিয়েছিলেন। কিন্তু সবকিছুকে ক্ষণিকের জন্য মিথ্যা করে দিলেন তামিম।

হাসপাতাল থেকে ফিরে হাতে স্লিং বেঁধে বসে ছিলেন সতীর্থদের সঙ্গে। কিন্তু বাংলাদেশের নবম উইকেট পড়ার পর সবাইকে অবাক করে নেমে গেছেন ব্যাটিংয়ে। এক হাতে ব্যাটিং করে সঙ্গ দিয়েছেন মুশফিককে।

পরে অবশ্য তামিমের ছিটকে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালনা প্রধান আকরাম খান। তিনি জানিয়েছেন, দুই-তিন মাসের জন্য মাঠের বাইরে চলে যেতে হচ্ছে তামিমকে। তবে এশিয়া কাপে তাঁর বদলি হিসেবে কাউকে নেওয়ার কথা এখনো ভাবছে না ক্রিকেট বোর্ড।

আলোকিত প্রতিদিন/১৬সেপ্টম্বর/এমএস

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন