অনন্য পর্যটন স্পট হতে পারে ‘মনু ব্যারেজ’

মৌলভীবাজার সংবাদদাতা: মৌলভীবাজার শহরতলীর মাতারকাপন এলাকায় অবস্থিত মনু ব্যারেজ একটি সম্ভাবনাময় পর্যটন স্পট। নদীর দুই পাশে ছায়া ঘেরা মায়াবী প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য মনমাতানো অপূর্ব দৃশ্য। শুষ্ক মৌসুমে বোরো ফসল চাষের জন্য মনু নদীর পানি ব্যবহারের জন্য এই ব্যারেজ নির্মাণ করা হয়েছিল।

কিন্তু বর্তমানে মনু ব্যারেজের এ পরিচয় ছাপিয়ে তা হয়ে উঠেছে জেলার অনন্য এক পর্যটন স্পট। জেলার মূল শহর থেকে মাত্র তিন কিলোমিটার দূরত্বে এটি অবস্থিত। স্থানীয়দের কাছে সুইচ গেট হিসেবেও পরিচিত। এখানে একটি আকর্শনীয় ব্যাপার হচ্ছে শীতকালে সূর্য উদয়ের মনোরম দৃশ্য। যা দর্শনার্থীর মন কাড়ে। প্রতিদিন অনেক দর্শনার্থী এখানে বেরাতে আসেন। নানা উৎসব আমেজও লোকে লোকারণ্য হয় মনু ব্যারেজ।

এটিকে ঘিরে গড়ে উঠেছে উন্নতমানের একটি রিসোর্ট। রিসোর্টে রয়েছে বিশাল মনোমুগ্ধকর ছড়া। ছড়ায় ভাড়ায় চালিত নৌকা ভ্রমণেরও ব্যবস্থা রয়েছে। গড়ে উঠেছে একটি বিনোদন পার্ক। ছোট-বড় সবারই চিত্ত-বিনোদনের ব্যবস্থা রয়েছে পার্কে। সাধারণত পর্যটকরা সন্ধ্যা ঘনিয়ে এলেই পশ্চিম দিকে বয়ে চলা মনু নদীর বুকে সূর্যাস্তের মনোরম দৃশ্য দেখতে পছন্দ করেন।

ঘুরতে আসা পর্যটক সৌরভ আহমেদ বলেন, জায়গা খুবই সুন্দর। প্রায় সময়ই বন্ধুদের নিয়ে আমি এখানে ঘুরতে আসি। মনু ব্যারেজকে যদি আরোও সৌন্দর্য বর্ধন করা যায় তাহলে অনেক বড় পর্যটন ¯পট হবে বলে আশা করছি।

স্থানীয়দের দাবি, মনু ব্যারেজ এলাকার সৌন্দর্য বর্ধন করলে মৌলভীবাজারের অন্যতম পর্যটন কেন্দ্রের তালিকায় স্থান পাবে। তাছাড়া শমসেরনগর সড়ক থেকে মনু ব্যারেজ এলাকা পর্যন্ত আসা সড়কটিরও সংস্কারের পাশাপাশি এখানকার নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও জোরদার করা হলে দেশী বিদেশী পর্যটকদের আনাগোনা বাড়বে।

মৌলভীবাজার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহজালাল বলেন, ভ্রমণপিপাসুদের জন্য খুবই সুন্দর একটি স্থান হচ্ছে মনু ব্যারেজ। পর্যটকদের নিরাপত্তার স্বার্থে আমাদের পুলিশ টিমও সেখানে উপস্থিত থাকেন। আশা করছি মৌলভীবাজারের অন্যতম পর্যটন কেন্দ্রের তালিকায় স্থান পাবে এটি।

আলোকিত প্রতিদিন/১৪সেপ্টেম্বর/আরএইচ

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন