সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে সাম্মানিক ডি-লিট উপাধী প্রদান

বিনোদন ডেস্ক: প্রখ্যাত অভিনেতা, নাট্যব্যক্তিত্ব ও আবৃত্তিকার সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে সাংস্কৃতিক অঙ্গনে বিশেষ অবদান রাখার জন্য সাম্মানিক ডি-লিট প্রদান করেছে কলকাতার প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়। গতকাল মঙ্গলবার কলকাতার সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নন্দন ৩-এ আয়োজিত এই বিশেষ সমাবর্তন উৎসবে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের হাতে এই সাম্মনিক ডি-লিট তুলে দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অনুরাধা লোহিয়া।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ে হিন্দু হোস্টেল ফিরিয়ে দেওয়ার দাবিতে ছাত্রছাত্রীদের আন্দোলন চলছে। তাই বিশ্ববিদ্যালয়ের মিলনায়তনে আয়োজিত বিশেষ সমাবর্তন অনুষ্ঠান বাতিল করে তা নন্দন ৩-এ আয়োজন করা হয়। ফলে ২০০ বছর ধরে চলা প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাবর্তন উৎসবের প্রথা ভেঙেছে এবার।

ডি-লিট গ্রহণ করে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় বললেন, ‘আমার অভিনয় যদি একজনের মুখেও হাসি ফুটিয়ে থাকে, যদি একজনকেও বেঁচে থাকতে সাহায্য করে থাকে, সেটাই আমার শিল্পী সত্তার বড় প্রাপ্তি।’ আবেগাপ্লুত হয়ে তিনি বলেন, ‘আমার আর সুযোগ হয়নি প্রেসিডেন্সিতে পড়ার। তাই তো কতকাল তাকিয়ে দেখেছি প্রেসিডেন্সিকে। আমার দাদা প্রেসিডেন্সিতে পড়তেন। কিন্তু আমি পড়ার সুযোগ পাইনি। ছোটবেলা থেকে দেখে এসেছি, সেরা সেরা ছাত্রছাত্রীরাই প্রেসিডেন্সিতে পড়ার সুযোগ পেয়ে আসছে।’

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় দীর্ঘ ৬০ বছর চলচ্চিত্র, নাটক আর আবৃত্তির সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন। পেয়েছেন ভারতের সাংস্কৃতিক অঙ্গনের সর্বোচ্চ বেসরকারি রাষ্ট্রীয় সম্মান ‘দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কার’। এ ছাড়া তিনি আটটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পেয়েছেন সাম্মানিক ডি-লিট। পেয়েছেন রাষ্ট্রীয় সম্মান ‘পদ্মবিভূষণ’, জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, সংগীত-নাটক একাডেমি সম্মান, ফিল্মফেয়ার পুরস্কারসহ আরও নানা সম্মান ও পদক। একই অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিএসসি সম্মানে ভূষিত করা হয় ভারতের প্রখ্যাত বিজ্ঞানী সি এন আর রাওকে।

 

আলোকিত প্রতিদিন/১২ সেপ্টেম্বর/আরএ

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন