তালার জালালপুর ইউনিয়নের গ্রাম আদালতের সাফল্য

এসএম বাচ্চু,তালা: তালা উপজেলার জালালপুর ইউনিয়নে অল্প সময়ে স্বল্প খরচে গ্রাম আদালতের মাধ্যমে ৭৫,০০০ টাকা মূল্যমানের দেওয়ানী ও ফোজদারী মামলার নিষ্পত্তি করা হচ্ছে। জুন ২০১৭ থেকে চলমান মাস ২০১৮ পর্যন্ত এ ইউনিয়ন পরিষদে মোট ১১০টি মামলা গ্রহন করা হয়েছে। যার মধ্যে বিভিন্ন পর্যায়ে ১০০ টি মামলা নিষ্পত্তি করা হয়েছে এবং ১৯ লক্ষ ৯৬ হাজার ৫৩০ টাকা ক্ষতিপূরন আদায় করা হয়েছে এবং ২০১০ টাকা মামলার ফিস আদায় করা হয়েছে বলে জানান গ্রাম আদালত সহকারী মো: ওয়ালিদ হোসেন ।

জালালপুর ইউপি চেয়ারম্যান এম মফিদুল হল(লিটু) বলেন, অল্প সময়ে স্বল্প খরচে এলাকার গরীব লোকজন সেবা পাচ্ছে যার কারনে লোকজন গ্রাম আদালতমূখী হচ্ছে। এছাড়া বিচারিক প্যানেলের কারনে লোকজনের বিশ্বযোগ্যতা বৃদ্ধি পেয়েছে। গ্রাম আদালতের সুযোগ-সুবিধা প্রচার করার জন্য বিভিন্ন কার্যক্রম করা হয় উঠান বৈঠাক,ভিডিও প্রদর্শনী,কমিউনিটি মতবিনিময় সভা,যুব কর্মশালা,গ্রাম আদালত বিষয়ক র‌্যালী যেখানে আমি সহ ইউ,পি সচিব, ইউ,পি সদস্য এবং গ্রামপুলিশ সক্রিয় অংশগ্রহন করি।

উপজেলা সমন্বয়কারী মো:ইউনুস আলী এর সাথে কথা বলে জানা যায় গ্রাম আদালতের কার্যক্রম বাস্তবায়নে জালালপুর ইউনিয়ন উপজেলা তথা জেলার মধ্যে একটি ভাল অবস্থানে রয়েছে।

উপকারভোগী শ্রীমন্তকাটি গ্রামের নূরবানু বলেন আমি মহিলা মানুষ হয়েও এ আদালতে কথা বলতে পেরেছি এবং কম খরচে খুব দ্রুত ন্যায় বিচার পেয়েছি। আশাশুনি উপজেলার খরিয়াটি গ্রামের হাসানূর গাজী বলেন অন্য উপজেলায় এবং অন্য ইউনিয়নে এসে এত দ্রুত টাকা ফেরত পাবো এটা ভাবতে ও পারিনি।

জালালপুর গ্রামের বাসারাত সরদার বলেন এত দ্রুত বেদখলকৃত জমি ফেরত পাবো এটা আগে বুঝিনি।জেঠুয়া গ্রামের জাকির হোসেন বলেন আমার কবুতর চুরির ক্ষতিপূরন পেয়ে আমি খুব খুশি।আবেদনকারী হাসিনা বেগম বলেন আমার স্বামীর ভাইপোরা আমাকে মেরেছে তাই গ্রাম আদালতে মামলা করতে এসেছি। আমি উঠান বৈঠাক থেকে গ্রাম আদালতের কথা জেনেছি।

আলোকিত প্রতিদিন/৭সেপ্টেম্বর/আরএইচ

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন