আগামী ৭ সেপ্টেম্বর আন্তর্জাতিকভাবে মুক্তি পেতে যাচ্ছে দ্য নান

বিনোদন ডেস্ক: মৃত্যুর পরে আমাদের আত্মার কি হয়? এ নিয়ে বিতর্কের যেমন শেষ নেই তেমনি ভূত আছে কি নেই তা নিয়েও বিতর্কের শেষ নেই। তবে মানুষ ভয় পেতে ভালোবাসে এ কথা বলেন মনোবিজ্ঞানীরাও। ভয়ে দু’হাত দিয়ে চোখ ঢেকে ফেললেও আঙুলের ফাঁক দিয়ে সাংঘাতিক দৃশ্যটা দেখতেও যেন ভুল করে না। তাই গোটা বিশ্বজুড়ে ভৌতিক ছবির জনপ্রিয়তাও গগনচুম্বী।

২০১৬ সালে মুক্তি পাওয়া ‘দ্য কনজুরিং ২’ ছবির অভিজ্ঞতা দর্শকদের মনে আছে নিশ্চয়ই। সেই রোমহর্ষক দৃশ্যগুলো মনে করলে অনেকেই আৎকে উঠবেন এখনও। ব্যাপক দর্শকপ্রিয়তা পাওয়া ছবিটি আলোড়ন সৃষ্টি করেছিলো বক্স অফিসেও।যারা ছবিটি দেখেছেন তাদের ‘দ্য কনজুরিং ২’য়ের সেই সন্নাসীকে মনে আছে নিশ্চয়ই। লরেনের চোখের সামনে বারবার যে চলে আসতো। সেই ভালাককে নিয়েই এবার গোটা একটা ছবি। কনজুরিং ফ্রাঞ্চাইজির নতুন এ ছবির নাম ‘দ্য নান’।

আগামী ৭ সেপ্টেম্বর আন্তর্জাতিকভাবে মুক্তি পেতে যাচ্ছে ছবিটি। একই দিনে বাংলাদেশের দর্শকরা ছবিটি দেখতে পাবেন স্টার সিনেপ্লেক্সে। সন্নাসিনীদের নিয়ে এতদিন যে ধরণের ছবি দেখেছেন দর্শক সেই অভিজ্ঞতা একেবারেই বদলে দিতে পারে ‘দ্য নান’। ‘সিস্টার অ্যাক্ট’, ‘সাউন্ড অব মিউজিক’ এর সন্নাসিনীদের মতো ইনি একেবারেই নন। ‘কনজুরিং’, ‘অ্যানাবেল’ এসবের উৎসের আগে ভালাকের জন্ম। কিভাবে সৃষ্টি হয়েছিলো এই ভৌতিক চরিত্রটি? সেটাই ছবিটিতে দেখিয়েছেন পরিচালক করিন হার্ডি।

আলোকিত প্রতিদিন/৬ সেপ্টেম্বর/আরএ

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন