কেশবপুর হাসপাতালে স্বাস্থ্য সেবা ভেঙ্গে পড়ছে | আলোকিত প্রতিদিন

কেশবপুর হাসপাতালে স্বাস্থ্য সেবা ভেঙ্গে পড়ছে

Spread the love

যশোর জেলা প্রতিনিধি :যশোরের কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নানা সমস্যায় স্বাস্থ্য সেবা ভেঙ্গে পড়ছে। দেখা গেছে, হাসপাতালের মেঝেতে বসে রোগী ভাত খাচ্ছে আর সেখানে রয়েছে বিড়াল। কর্তৃপক্ষের অব্যবস্থাপনা, দূর্ব্যবহার, নিন্মমানের খাদ্য সরবরাহসহ সময়মত ডাক্তারা অফিস না করায় উপজেলার ৩ লাখ মানুষের একমাত্র চিকিৎসালয়টি বেহাল দশায় পরিণত হয়েছে।

জানা গেছে, সরকার স্বাস্থ্য সেবা জনগণের দোরগোড়াই পৌঁছে দেয়ার ধারাবাহিকতায় এ উপজেলার ৩ লাখ মানুষের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সেকে ৫০ শয্যায় উন্নীত করনসহ অতিরিক্ত ৯ জন ডাক্তার যোগদান করেন। এতে রোগীদের সেবার মান আরও বৃদ্ধি পাওয়ার কথা। কিন্তু হাসপাতালের ঊর্ধ্বতন কর্তার দূর্ব্যবহারে হাসপাতাল ছেড়ে গেছে একে একে ১০ জন ডাক্তার।

বর্তমান হাসপাতালে ২২ জন ডাক্তারের স্থলে আছেন ৯ জন। স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সটি যশোর, খুলনা ও সাতক্ষীরা জেলার মধ্যবর্তী স্থানে অবস্থিত। এ হাসপাতালে কেশবপুরসহ মনিরামপুর, কলারোয়া, তালা ও ডুমুরিয়া উপজেলার হাজার-হাজার রোগী চিকিৎসা সেবা নিতে আসেন। বহি:বিভাগে ১০/১২টি রড লাইট থাকলেও সচল রয়েছে মাত্র ১টি। রোগী ও স্বজনদের অভিযোগ, বন্যা পরবর্তী এলাকায় রোগ দেখা দিলে সময়মত ডাক্তার না পাওয়া ছাড়াও হাসপাতালে বিভিন্ন সমস্যার কারনে তারা যশোর ও খুলনায় চিকিৎসা নিচ্ছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে অধিকাংশ কর্মচারীরা অভিযোগ করেছেন, অফিস চলাকালিন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা এবং অন্যান্য ডাক্তার কর্মচারীরা সময় মতো অফিস না করা ছাড়াও স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সের সামনে চায়ের দোকানে আড্ডা দিয়ে সময় পার করেন। এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার শেখ আবু শাহীন বলেন, সকাল ৮টা থেকে বেলা আড়াইটা পযন্ত কর্মকর্তা কর্মচারীদের অফিস করার কথা থাকলেও নানা কারণে আসতে দেরি হয়।

 

আব্দুল মজিদ/আলোকিত প্রতিদিন/২১সেপ্টেম্বর/এসজেড

এই সংবাদ ৭১০ বার পঠিত।
ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন

সম্পাদক ও প্রকাশক

সৈয়দ নুরুল হুদা রনো, সম্পাদক ও প্রকাশক দৈনিক আলোকিত প্রতিদিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *