জামালপুরে বকেয়া বেতনের দাবিতে শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ, পুলিশ-শ্রমিক সংঘর্ষে ১০ জন আহত | আলোকিত প্রতিদিন

জামালপুরে বকেয়া বেতনের দাবিতে শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ, পুলিশ-শ্রমিক সংঘর্ষে ১০ জন আহত

Spread the love

জামালপুর প্রতিনিধি : জামালপুরের সরিষাবাড়িতে বন্ধ মিল চালু, ও বকেয়া বেতনের দাবিতে রাস্তায় গাছের গুড়ি ও টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে ৩ ঘন্টা সড়ক অবরোধ করে রাখে আলহাজ্ব জুট মিলের বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা। এসময় পুলিশ ও শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষ সৃষ্টি হয়। এতে ৫ পুলিশসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে পুলিশ কনস্টেবল তাসলিমা ও নারী শ্রমিক জাহানারা বেগমকে সরিষাবাড়ি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা আলহাজ্ব জুট মিলের শ্রমিকরা মিল চালু ও বকেয়া বেতনের দাবিতে মিল গেইটের সামনে শত শত শ্রমিক জড়ো হয়ে বিক্ষোভ শুরু করে। শ্রমিকরা সেখান থেকে বিশাল একটি বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে সরিষাবাড়ি রেলওয়ে স্টেশনের সামনে উপজেলার প্রধান সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। বিক্ষুব্দ শ্রমিকরা বেলা ১২ টা থেকে ২টা পর্যন্ত রাস্তায় গাছের গুড়ি ফেলে ও টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ করে। এসময় সরিষাবাড়ী-তারাকান্দি-ভুঞাপুর সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

 

পুলিশ অবরোধকারীদের সড়ক থেকে উঠানোর চেষ্টা করলে পুলিশের সাথে শ্রমিকদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। এসময় শ্রমিকরা পুলিশকে লক্ষ করে ইট পাট-কেল নিক্ষেপ করে। পুলিশও শ্রমিকদের উপর লাঠিচার্জ করে। এতে পুলিশসহ কমপক্ষে ১০ আহত হয়। পরে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সরিষাবাড়ি থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মহব্বত কবির এই প্রতিবেদককে বলেন, প্রায় ৩ ঘন্টার মতো সড়ক অবরোধ শেষে শ্রমিকদের সড়ক থেকে সরানোর চেষ্টা করলে তাদের সাথে পুলিশের সংর্ঘষ হয়। এসময় নারী কনেষ্টবল তসলিমা ৫ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে।

আলহাজ জুটমিল শ্রমিক ইউনিয়ন (সিবিএ) সাধারন সম্পাদক জাহিদুর রহমান জানান, পূর্ব ঘোষনা ছাড়াই আলহাজ্ব জুট মিল কর্তৃপক্ষ শ্রমিকদের বেতন-ভাতা না দিয়েই গত ২১ জুলাই মিল বন্ধ করে দেয়। এতে প্রায় ৩ হাজার শ্রমিক-কর্মচারী বেকার হয়ে পড়ে। বকেয়া বেতনের প্রদানের জন্য মিল কর্তৃপক্ষের সাথে বার বার যোগাযোগ করলে বেতন পরিশোধে মালিক পক্ষের লোকজন অস্বীকার করায় বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা সড়ক অবরোধের ডাক দেয়।

আলোকিত প্রতিদিন/১৬আগস্ট/আরএইচ

এই সংবাদ ২৩৮ বার পঠিত।
ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন