'গন্ধ আ. লীগেরই পাওয়ার কথা, আমরা পাচ্ছি না': নজরুল ইসলাম খান | আলোকিত প্রতিদিন

‘গন্ধ আ. লীগেরই পাওয়ার কথা, আমরা পাচ্ছি না’: নজরুল ইসলাম খান

Spread the love

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাহেব এক-এগারোর গন্ধ পাচ্ছেন। পাওয়ার কথা? এক-এগারো তো তাঁরাই করেছিলেন। ওই এক-এগারোর সরকারকেই তাঁরা তাঁদের আন্দোলনের ফসল বলে ঘোষণা করেছিলেন।’

জাতীয় শোকদিবস উপলক্ষে গত বৃহস্পতিবার রাজধানীর ইডেন মহিলা কলেজে আয়োজিত এক আলোচনাসভায় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছিলেন, ‘এক-এগারোর গন্ধ পাচ্ছি।’ তাঁরই কথার জবাবে আজ এ মন্তব্য করেন নজরুল ইসলাম খান।

আজ শনিবার বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে শ্রমিক দল ঢাকা মহানগর উত্তর আয়োজিত আলোচনা সভায় নজরুল ইসলাম খান বক্তব্য দেন।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘তাহলে কীভাবে কী পরিস্থিতিতে এই এক-এগারো হয়, এটা তো তাঁদের জানাই আছে। অতএব আগে থেকে কেউ যদি গন্ধ পায়, সেটা তো তাদেরই পাওয়ার কথা। আর কারো পাওয়ার কথা না। আমরা যেমন পাচ্ছি না। এক-এগারোর মতো সরকার আমরা পছন্দ করি না। আমরা নির্বাচন চাই। অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন যেখানে জনগণ নিশ্চিন্তে ভোট দিতে পারবে এবং তারা যাকে ভোট দিবে সে বিজয়ী হবে।’

সুষ্ঠু নির্বাচন হলে বিএনপির চার ভাগের এক ভাগ ভোট আওয়ামী লীগ পাবে এমন দাবি করেন নজরুল ইসলাম খান। এই কারণে নির্দলীয় সরকারের অধীনে ক্ষমতাসীনরা নির্বাচন দিতে চায় না বলে তিনি মন্তব্য করেন।

খন্দকার জুলফিকার মতিনের সভ্পতিত্ত্বে উক্ত সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান জনাব বরকত উল্লাহ ভুলু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, শ্রমিক দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি-আনোয়ার হোসেন, সাধারন সম্পাদক- নুরুল ইসলাম খান নাসিম, মোস্তাফিজুল করিম মজুমদার, আফজাল খান, গফুর পাটোয়ারী, সুমন ভুইয়া, মাহবুবুল আলম বাদল, আব্দুল আউয়াল, গোলাম রসুল পারভেজ, রেফাতুল আলম, ইফতেখার আলম, গোলাম মাহমুদ মিন্টু, কাওসার আহমেদ, নজরুল ইসলাম বাবুল, আলী কায়সার পিন্টু, আব্দুর রউফ, শাহজাহান মিয়া, জুয়েল মিয়া, রাশেদুল ইসলাম রনি, মুস্তাফিজুর রহমান আক্তার, মজিবর রহমান, মনির হোসেন, শাহিন আলম, বাদল বাবু, বাবুল শিকদার, জাহাঙ্গির হোসেন, ফজলু আব্দুল কাদের, সুমন মিয়া প্রমুখ।

 

আলোকিত প্রতিদিন/১৮আগস্ট/আরএইচ

এই সংবাদ ৩২৯ বার পঠিত।
ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন