ভোলায় একই দিনে দুটি ধর্ষণ | আলোকিত প্রতিদিন

ভোলায় একই দিনে দুটি ধর্ষণ

Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদক: ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলায় অষ্টম শ্রেণির এক মাদরাসা ছাত্রীকে (১৩) ধর্ষণ ও এক বিধবা নারীকে (৩৫) গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার ভোরে ও বৃহস্পতিবার রাতে এসব ঘটনা ঘটে। ধর্ষিতাদের ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।মাদরাসা ছাত্রীর পরিবারের সদস্যরা জানান, বৃহস্পতিবার রাতে বোরহানউদ্দিন উপজেলার বড় মানিকা ইউনিয়নের মাদ্রসাছাত্রীকে বাড়িতে রেখে তার মা, বাবার বাড়িতে বেড়াতে যায় এবং বাবা নদীতে মাছ ধরতে যায়। এ সুযোগে একই এলাকার আব্দুল রশিদের ছেলে মো. সোহাগ ছাত্রীকে ঘরে একা পেয়ে ধর্ষণ করে।

এ সময় মেয়েটির বাবা বাড়িতে এলে মেয়ের চিৎকার শুনতে পায়। তিনি এগিয়ে গেলে ধর্ষক তাকে মারধর করে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় ধর্ষিতার বাবা শুক্রবার বিকেলে বোরহানউদ্দিন থানায় মামলা দায়ের করেছেন।অন্যদিকে, একই উপজেলার কাচিয়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের ফুল কাচিয়া গ্রামের বিধবা এক নারী (৩৫) শুক্রবার ভোরে তার মুরগির খামারে খাবার দিতে যায়। সেখানে একই এলাকার মাদকসেবী মাকসুদ, ছালাউদ্দিন ও আলমগীর তারা তিনজন মুখ চেপে হাত-পা বেঁধে গণধর্ষণ করে। পরে সকালে স্থানীয়রা তাকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।এ ঘটনায় ওই নারীর বড় বোন বোরহানউদ্দিন থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

ভোলা সদর হাসপাতালের সিনিয়র নার্স সারজিনা জানান, ধর্ষিতাদের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়েছে। ধর্ষণের আলামতও পাওয়া গেছে।বোরহানউদ্দিন থানা পুলিশের ওসি মো. এনামুল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মাদরাসা ছাত্রীর ধর্ষণের ঘটনায় তার বাবা ৩ জনকে আসামি করে থানায় দায়ের করেছেন। অপর ধর্ষণের ঘটনায় এখনও কোনো অভিযোগ থানায় আসেনি। তবে এ ঘটনায় জড়িতদের আটকের চেষ্টা চলছে।

 

আলোকিত প্রতিদিন/আগস্ট/২০/এমআর
এই সংবাদ ১৫০ বার পঠিত।
ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন