বেনাপোল-পেট্রাপোল স্থলবন্দরে আমদানি-রফতানি বন্ধ ২দিন

 নিজস্ব প্রতিবেদক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিশেষ নিরাপত্তার জন্য শনিবার (২৯ ডিসেম্বর) সকাল থেকে রোববার (৩০ ডিসেম্বর) রাত পর্যন্ত বেনাপোল-পেট্রাপোল স্থলবন্দর দিয়ে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে আমদানি-রফতানি কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। এর ফলে দুই দিন এ পথে কোন আমদানি-রফতানি হবে না। তবে এ সময় উভয় দেশের পাসপোর্টধারী যাত্রীদের যাতায়াত স্বাভাবিক থাকবে বলে জানা গেছে। সোমবার (৩১ ডিসেম্বর) সকাল থেকে আবার এ পথে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য চলবে বলে জানান বন্দর সংশ্লিষ্টরা।

বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্ট স্টাফ অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন জানান, জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে সরকারি ঘোষণা অনুযায়ী শনিবার ও রবিবার বেনাপোল-পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি বন্ধ থাকবে। এ ছাড়াও কাস্টমস, বন্দরের কর্মকর্তারা উপজেলার বিভিন্ন স্থানে নির্বাচনী দায়িত্ব পালন করতে বন্দর ত্যাগ করেছেন। সোমবার সকাল থেকে পুনরায় এ পথে আমদানি-রফতানি কার্যক্রম চলবে।

ভারতের পেট্রাপোল সিএন্ডএফ স্টাফ ওয়েল ফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কার্তিক চক্রবর্তী জানান, বাংলাদেশে নির্বাচন উপলক্ষ্যে সরকারি ছুটি থাকায় শনি ও রোববার পেট্রাপোল-বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি বন্ধ থাকবে বলে বেনাপোল চেকপোস্ট কাস্টমস কার্গো শাখার কর্মকর্তারা আগেই জানিয়ে দিয়েছেন।

বেনাপোল কাস্টমস চেকপোষ্ট কার্গো শাখার রাজস্ব কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান জানান, জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষ্যে বিশেষ নিরাপত্তার জন্য দু‘দিন বন্ধ থাকবে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম। ফলে এ পথে কোন আমদানি-রপ্তানি হবে না। তবে শনিবার আমদানি পণ্য নিয়ে আসা ভারতীয় খালি ট্রাক ফেরত পাঠানোর জন্য বিশেষ ব্যবস্থায় কার্গো শাখা খোলা রাখা হয়েছে। সোমবার সকাল থেকে আমদানি-রফতানি যথারীতি চলবে।

বেনাপোল স্থলবন্দর পরিচালক (ট্রাফিক) প্রদোষ কান্তি দাস বলেন, এ বন্দরে দেশের কয়েকশ আমদানিকারকের কোটি কোটি টাকার পণ্য রয়েছে। নির্বাচনের ছুটিতে বন্দরের কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। এ সময় যাতে কেউ সেখানে প্রবেশ করে পণ্যের ক্ষতি কিংবা কোনো রকম নাশকতামূলক ঘটনা না ঘটাতে পারে, এজন্য নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে। সেই সাথে আনসার ব্যাটালিয়ন ও বেসরকারি সিকিউরিটি সংস্থা পিমাকে সতর্ক রাখা হয়েছে।

আলোকিত প্রতিদিন/২৯ ডিসেম্বর/এমকে

এই সংবাদ ২৯৩ বার পঠিত।
ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন
%d bloggers like this: